fbpx
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / বিস্তারিত

অনন্য ফাতি, দুর্দান্ত বার্সেলোনা

১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩:৪৭:১৫

ফাতিকে চিনে রাখুন।

গেল ম্যাচে আনসু ফাতির গোলের ‘দাম’ দিতে পারেনি বার্সেলোনা। এ ম্যাচে সেটা দিল সুদে-আসলে। আনসু ফাতি ম্যাচে যতক্ষণ ছিলেন খেলেছেন দুর্দান্ত। গোল করেছেন, করিয়েছেন।

লা লিগায় ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে হেসে-খেলেই জিতেছে বার্সেলোনা। প্রতিপক্ষের জালে এক এক করে ৫ গোল দিয়েছে কাতালানরা। ফাতি, ডি জং, পিকে একবার করে ভ্যালেন্সিয়ার জালে বল জড়ান। ম্যাচের শেষভাগে মাঠে নেমে সুয়ারেজ করেন জোড়া গোল। বার্সেলোনার প্রথম দুই গোলের পর ভ্যালেন্সিয়া এক গোল করে শুধু ব্যবধানটাই কমায়। ম্যাচের শেষে যোগ হওয়া সময়ে গোমেজের গোলটিও তাদের জন্য হয়ে রইল সান্ত্বনা। ক্যাম্প ন্যুতে বার্সেলোনা ৫-২ গোলের ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে।
ফাতিকে ঘিরেই বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের উদ্‌যাপন।

শুরুটা করেন লা লিগায় বার্সেলোনার হয়ে সর্বকনিষ্ঠ গোলদাতা হিসেবে ইতিহাসের পাতায় নাম লেখানো আনসু ফাতি। ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই ফাতির গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকেরা। বক্সের ভেতর ডি জংয়ের দুর্দান্ত পাস থেকে বল জালে জড়াতে এতটুকু ভুল করেননি বার্সেলোনার ১৬ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। মিনিট পাঁচেক পর অতিথি শিবিরে আঘাত হানেন ডি জং। এবার ডি জংয়ের গোলে সাহায্য করলেন ফাতি। ফাতির নিখুঁত পাস দুর্দান্ত শটে জালে জড়ান ডি জং। ম্যাচের ২৭তম মিনিটে ভ্যালেন্সিয়ার হয়ে গামেইরোর গোলটি খেলায় কোনো প্রভাবই ফেলতে পারেনি।
ফাতির বদলি হিসেবে মাঠে নেমে জোড়া গোল করেন সুয়ারেজ।

দ্বিতীয়ার্ধেও একই ছন্দে খেলতে থাকে বার্সেলোনা। ৫৩ মিনিটে জটলার মধ্যে বল পেয়ে গোল করেন পিকে। ৬০ মিনিটে ফাতির বদলি হিসেবে নামেন সুয়ারেজ। নেমেই নিজের জাত চেনান বার্সেলোনার উরুগুইয়ান এই তারকা। আর্থুরের কাছ থেকে প্রথমবারের মতো বল পেয়েই জালে জড়ান সুয়ারেজ। ৮২তম মিনিটে ভ্যালেন্সিয়ার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন সুয়ারেজই। গ্রিজমানের কাছ থেকে বল পেয়ে ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন সুয়ারেজ। যোগ হওয়া সময়ে ভ্যালেন্সিয়ার হয়ে গোমেজের এক গোলে স্কোরলাইন ৫-১ থেকে শুধু ৫-২-এ পাল্টে যায়।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: