করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ২,৯১১ ◈ আজকে মৃত্যু : ৩৭ ◈ মোট সুস্থ্য : ১১,১২০

করোনা ভাইরাসের সংক্রমন ও প্রতিরোধে সাদুল্যাপুর লক ডাউনের গুজব সঠিক নয়

২২ মার্চ ২০২০, ১০:৩৫:১৭

গাইবান্ধা প্রতিনিধি॥ করোনা ভাইরাস সংক্রমন ও প্রতিরোধে সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষার লক্ষ্যে রোববার বিকেলে গাইবান্ধা শহরের কেন্দ্রস’লে শহীদ মিনার সংলগ্ন জনবহুল পৌর পার্কটি অনির্দিষ্ট কালের জন্য লক ডাউন ঘোষণা করেছেন পৌর মেয়র অ্যাড. শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর মিলন। ফলে পৌর পার্কে যাওয়া থেকে জনগণকে বিরত থাকতে বিনীত অনুরোধ জানানো হয়েছে এবং পৌর পার্কের সকল দোকানপাট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এই লক ডাউন অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।
এদিকে শহরের খাঁপাড়ায় আমেরিকা প্রবাসী জনৈক গৃহবধু প্রতিমা সরকার ও তার সন্তান বাংলাদেশে বাড়িতে বেড়াতে এসে তারা অসুস’ হয়ে পড়ে এবং তাদের শরীরে করোনা ভাইরাস পজেটিভ প্রমাণিত হয়। ফলে তাদেরকে তাদের নিজ বাড়িতে পুলিশ প্রহরায় হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

অপরদিকে সাদুল্যাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. নবীনেওয়াজ স্বাক্ষরিত ২২ মার্চের ০৫.৫৫.৩২৮২.০০০. ১৮.১০৭. ১৯. ২৬২ স্মারক নং এক পত্রে সাদুল্যাপুর রোববার উপজেলার বনগ্রাম ইউনিয়নে হবিবুল্লাপুর গ্রামে কাজল মন্ডল পিতা শচিন্দ্র নাথ মন্ডলের বোনের বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণকারী দুজন আমেরিকা প্রবাসী আত্বীয় করোনা পজেটিভ হিসাবে সনাক্ত হয়েছেন। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রায় পাঁচশ লোক দাওয়াত প্রাপ্ত হয়ে উপসি’ত ছিলেন। এ অবস্থায় ভাইরাসটি দ্রুত সংক্রামণ ঘটতে পারে মর্মে আশু সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে অত্র উপজেলার সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষার লক্ষ্যে সাদুল্লাপুর উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি সর্বসম্মতিক্রমে সাদুল্লাপুর উপজেলাকে ‘লকডাউন’ সিন্ধান্ত গ্রহন করে মর্মে পত্রে উল্লেখ করা হয় এবং এব্যাপারে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবরে পত্রটি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রেরিত হয়।
সাদুল্যাপুর উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ শাহিনুর ইসলাম জানান, সাদুল্যাপুর উপজেলার হবিবুল্লাপুর গ্রামের কাজল চন্দ্র মন্ডলের বোনের বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণে তার বাড়ীতে আমেরিকা প্রবাসী দু’জন আত্মীয় (যারা গাইবান্ধা শহরের খাপাড়ায় হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে) কাজল চন্দ্র মন্ডলের বাড়ীতে ১১ ও ১২ মার্চ অবস্থান করে ১৩ মার্চ বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ খেয়ে গাইবান্ধা শহরের খাঁ পাড়ায় নিজ বাড়ীতে চলে যায়। তিনি আরও জানান, পরে তাদের দু’জনের নমুনা ঢাকায় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়। রোববার ঢাকা আইইডিসিআর থেকে জানানো হয়, ওই দু’জনের নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

সিভিল সার্জন ডাঃ এবিএম আবু হানিফ বলেন, সাদুল্যাপুরের হবিবুল্লাপুরে করোনা ভাইরাস আক্রান- পজেটিভ কোন রোগীর সনাক্ত হয়েছে এই মর্মে কোন তথ্য নেই। সুতরাং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নবীনেওয়াজ স্বাক্ষরিত উল্লেখিত বিষয়টি সঠিক নয় বলে তিনি উল্লেখ করেন এবং গুজবে কান না দেয়ার জন্য তিনি সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।
এব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. আব্দুল মতিন জানান, সাদুল্যাপুর উপজেলার ওই গ্রামে এখন পর্যন- করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এই মর্মে কাউকে সনাক্ত করা যায়নি। সুতরাং লক ডাউন করার কোন প্রয়োজনীয়তা নেই। প্রকৃত পক্ষে হবিবুল্লাপুর গ্রামে সন্দেহভাজনদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। সাদুল্যাপুর উপজেলাকে লক ডাউন করার সিদ্ধান-টি সঠিক নয় উল্লেখ করে এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে কারণ দর্শাও নোটিশ জারি করা হচ্ছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। সেইসাথে কোন গুজব না ছড়ানোর জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহবান জানান।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: