fbpx
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

গলাকাটা আতঙ্কে আতঙ্কিত পীরগঞ্জবাসী

২১ জুলাই ২০১৯, ৮:২৩:৫০

ফাইদুল ইসলাম,পীরগঞ্জ,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ
একই দিনে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলায় পৃথক দুইটি ঘটনা ঘটেছে। শনিবার রাত সাড়ে ১১টায় জাবরহাট ইউনিয়নের হাটপাড়া করনাই এলাকায় অজ্ঞান করে দুই যুবকের গলা কাটার চেষ্টা করে। এ সময় স্থানীয় লোকজন দেখে ফেললে দ্রুত মাইক্রোবাসে পালিয়ে যায় চক্রটি।

স্থানীয়রা ওই দুইজনকে উদ্ধার করে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ওইদিন সন্ধ্যায় উপজেলার পীরগঞ্জ ইউনিয়নের চাপোড় বাজার এলাকা থেকে ছেলে ধরা সন্দেহে দিনাজপুর জেলার কাহারোল উপজেলা থেকে আসা আব্দুল মাজেদের ছেলে সাকিব (২৮) কে সন্দেহ হলে তার ব্যাগে থাকা দড়ি, ছুরি, বস্তা, গ্যাসলাইট সহ পেলে গণপিটুনি দিয়ে মাথা ও নাক ফাটিয়ে রক্তাক্ত করে স্থানীয় লোকজন।

পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ওই যুবককে উদ্ধার করে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। এর আগেও একজন মানসিক রোগীকে মারপিট করে পুলিশে দেয় স্থানীয়রা। তবে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকেও ছেড়ে দেয় পুলিশ। পীরগঞ্জ থানার ওসি বজলুর রশিদ প্রতিদিনের সাংবাদ কে জানান, স্থানীয়রা ভুলবশত ছেলেধরা সন্দেহ করে যুবককে পিটিয়ে আহত করেছে।

ররিবার দুপুরে পুলিশ ওই যুবককে প্রাথমিক চিকিৎসা এবং ওষুধপত্র কিনে দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়েছে। পীরগঞ্জের সাংবাদিক ফরহাদ রেজা অনিক জানান, আমার ভাগ্নি জেমি সহ আরও কয়েকজন শিক্ষার্থী বেসরকারি এনজিও পরিচালিত ব্র্যাকের শিখন স্কুল ও ব্যক্তি মালিকাধীন স্কুলগুতে অধ্যয়নরত। গলাকাটা আতঙ্কের ভয়ে সপ্তাহ খানেক ধরে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে এবং বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না বলে কমলমতি শিশুরা এখনও আতঙ্কে । স্কুল যাওয়া বন্ধের বিষয়ে গুটি কয়েক শিশু শিক্ষার্থীকে জিঙ্গাসা করলে তারা জানান ছূয়া ধরা ভেলে বাহির হলে হামার মত ছ’য়ার মাথা কাটিবা যদি হামাক পা রাস্তাত একেলা এপাকুত ভয়ে স্কুলত হামরা জায়নি।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: