শিরোনাম
◈ মাননীয় সংসদ সদস্য এস এম শাহজাদা (এমপি) মহোদয়ের পক্ষ থেকে শারদীয়ার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ৬‌ন‍ং ডাকুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ-প্রার্থী গাজী মোস্তফা কামাল ◈ শারদীয় দূর্গা পূজা উপলক্ষ্যে সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন মণিরামপুর উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল ইসলাম ◈ শারদীয় দূর্গা পূজা উপলক্ষ্যে সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন চালুয়াহাটি ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ইমরান খান পান্না ◈ শারদীয় দূর্গা পূজা উপলক্ষ্যে সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম মিলন ◈ শারদীয় দূর্গা পূজা উপলক্ষ্যে সবাইকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন রাজগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি রবিউল ইসলাম রবি
     করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ০ ◈ আজকে মৃত্যু : ০ ◈ মোট সুস্থ্য : ৩১০,৫৩২
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

চট্টগ্রামের বিপ্লব উদ্যানে অবৈধ বসার চেয়ার-টেবিল উচ্ছেদ

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৪:৪৫:১১

চট্টগ্রাম ব্যুরো::
চট্টগ্রাম নগরীর ষোলশহর ২নং গেইট সংলগ্ন বিপ্লব উদ্যানে সৌন্দর্যবর্ধন কার্যক্রমে চুক্তির শর্ত ভঙ্গ করে নির্মিত দোকানের সামনে অতিরিক্ত বসার চেয়ার-টেবিলগুলো উচ্ছেদ করা হয়েছে। পাশাপাশি দোতলার দোকানগুলো সরিয়ে নিতে সাতদিনের সময় দিয়েছে।

সোমবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী ও স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট জাহানারা ফেরদৌসের নেতৃত্বে চুক্তিবহির্ভূত আসনগুলো ভেঙে দেয়া হয়।

চসিকের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল ইসলাম বলেন, চুক্তি অনুযায়ী বিপ্লব উদ্যানে ২৫টি দোকানের কথা বলা হলেও দোতলাসহ সব মিলিয়ে ৪০টি দোকান নির্মাণ করা হয়। ২৫টি দোকানের আয়তনও চুক্তিতে উল্লেখ থাকা আয়তনের চেয়ে বাড়ানো হয়। দোকানের সামনে দুই সারি করে স্থায়ী বসার আসন বানানো হয়েছে। এক সারি আজ ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে। দোকানগুলো সাতদিনের মধ্যে সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে।

এদিকে একই অভিযানে এম এম আলী রোড ও মেহেদীবাগ রোডে রাস্তার উভয়পার্শ্বের ফুটপাত অবৈধভাবে দখল করে বসা প্রায় ২০টি দোকানের মালামাল অপসারণ ও বর্ধিত অংশ উচ্ছেদ করা হয়। এসময় অবৈধভাবে ফুটপাত দখল করে দোকানের পণ্য সামগ্রী রেখে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি অপরাধে আট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে আট হাজার পাঁচশত টাকা জরিমানা করা হয়।

এর আগে গত ২৫ আগস্ট বিপ্লব উদ্যানের সৌন্দর্যবর্ধন কার্যক্রম পরিদর্শন ও গণশুনানিকালে চসিক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন সৌন্দর্যবর্ধন কার্যক্রমে নির্মিত দোকানের বর্ধিত অংশ ভেঙে ফেলা এবং চুক্তি লঙ্ঘিত হওয়ায় এর সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত দোকান বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিলেন।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: