fbpx
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

চৈত্রসংক্রান্তিতে মেতেছে রাবির নৃবিজ্ঞান বিভাগ

১৩ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৫৭:২৭

রাবি প্রতিনিধি:
বাংলা বর্ষের ১৪২৫ এর সমাপনী মাস চৈত্রের শেষ দিন আজ। দিনটি সকলের কাছে ‘চৈত্রসংক্রন্তি’ নামে পরিচিত। বাংলা বর্ষকে প্রতিবছরের ন্যায় এবারও জমকালো আয়োজনের মধ্যদিয়ে ‘চৈত্রসংক্রান্তি’ উদযাপন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) নৃবিজ্ঞান বিভাগ।

শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সৈয়দ ইসমাইল হোসেন সিরাজী ভবনের সামনে বিকাল ৪টা থেকে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে উদযাপিত হয় চৈত্র সংক্রান্তি উৎসব। উৎসবমুখর অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষের নবীন শিক্ষার্থীদের আনুষ্ঠানিক ভাবে বরণ করে নেয় নৃবিজ্ঞান বিভাগ।

চৈত্র সংক্রান্তি উপলক্ষে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। বিভাগের শিক্ষার্থীদের স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহণ অনুষ্ঠানকে করেছে প্রাণবন্ত। মনোমুগ্ধকর আয়োজনের মধ্য দিয়ে চৈত্রকে বিদায় জানিয়ে নতুন বছরকে স্বাগত জানায় বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

এসময় বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী নাজমুস সাকিব ও ফাল্গুনীর স ালনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি এম আব্দুস সোবহান বলেন, আমরা সবাই মানুষ। প্রত্যেকটি মানুষের একটি ধর্ম রয়েছে, আর সেই ধর্ম তার সংস্কৃতির বাইরে নয়। সম্প্রতি কিছু মানুষ আছে যারা এই সংস্কৃতিকে নিয়ে অপপ্রচার চালায়। এই ধর্মকে সাম্প্রাদায়ীকতার উপাদান হিসেবে ব্যবহার করে। আমাদের এই সংকীর্ণতা থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে। মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব। কিন্তু এসব সংকীর্ণ চিন্তা ভাবনা মানুষকে নিকৃষ্টতম করে তোলে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক বখতিয়ার আহমেদ।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন উপ-উপাচার্য ও অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক কামাল পাশা, অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক অভিজিৎ রায়, শামিম আহম্মেদ, এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, সহকারী অধ্যাপক লিটন হোসেন, কে.এম মোস্তাফিজুর রহমান, গোলাম ফারুক সরকার প্রমুখ।

অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়াজন করা হয়। বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের যৌথ পরিবেশনায় গান, নাচ, ছায়াছন্দ, কবিতা, পুথিপাঠ, কৌতুক, মুখাভিনয় নাটকসহ নানা আয়োজন করা হয়। এসময় বিভাগের তিন শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: