fbpx
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

হেলাল আহমদ

ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

ছাতকে কাল বৈশাখী ঝড়ে বিভিন্ন এলাকা লন্ডভন্ড

১৮ এপ্রিল ২০১৯, ৯:১৬:২০

ছাতক প্রতিনিধিঃ
ছাতকে কাল বৈশাখী ঝড়ে লন্ড-ভন্ড করে দিয়েছে সদরসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকা। ঝড়ে দু’শতাধিক কাঁচা ঘর-বাড়িসহ অসংখ্য গাছ-গাছালি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, পোলট্রি খামার বিনষ্ট হয়েছে। ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে হাওরের পাকা, আধা পাকা বোরো ফসল ও সবজী বাগান। বুধবার ভোরে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বৈশাখী ঝড় আঘাত হানে। কাল বৈশাখী ঝড়ে ছোট-বড় বৃক্ষরাজিসহ সামাজিক বনায়নের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি সাধিত হয়। কোথাও কোথাও ঝড়ে হাওরের পাকা বোরো ফসল ভূমির সাথে মিশে গেছে। গাছ-পালা ভেঙ্গে ও উপড়ে গিয়ে তছনছ হয়ে পড়ে বিদ্যুতের বিতরণ ব্যবস্থা। ঝড়ে কবলিত এসব এলাকা ভোর রাত থেকে বুধবার রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিদ্যুৎহীন অবস্থায় ছিল। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তৌফিক হোসেন চৌধুরী জানান, পাকা বোরো ফসল ছাড়াও এখানে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে সবজি বাগানের।

উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ সৈদেরগাও-ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আখলাকুর রহমান, উত্তর খুরমা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিলাল আহমদ, নোয়ারাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পীর আব্দুল খালিক, ভাতগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আওলাদ হোসেন মাষ্টার, ছাতক সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম জানান, ভোর রাতে প্রচন্ড ঝড়ে তাদের ইউনিয়নের বোরো ফসল, ঘর-বাড়ি ও গাছ-গাছালির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া ছাতক পৌরসভার বিভিন্ন এলাকাসহ কালারুকা, চরমহল্লা, জাউয়া, সিংচাপইড়, দক্ষিণ খুরমা, দোলারবাজার, ছৈলা-আফজলাবাদ ও ইসলামপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে কাল বৈশাখীর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে গ্রাম্য জনগোষ্ঠি। বহু পরিবার এখনো খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছে। পৌরসভার নোয়ারাই এলাকায় মেসার্স মমিন লাইন ওয়ার্কস (চুনা কারখানা) সম্পূর্ণ বিধ্বস্থ হয়েছে। এতে প্রায় ১৬ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান কারখানা মালিক আব্দুল মমিন চৌধুরী।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: