করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ২,৬৯৫ ◈ আজকে মৃত্যু : ৩৭ ◈ মোট সুস্থ্য : ১১,৫৯০

ছাতকে বাড়ি ছাদে শোভা পাচ্ছে শাক-সবজী ও ফুল-ফলের বাগান

১৯ মে ২০২০, ৯:৩৮:৫১

ছাতক প্রতিনিধিঃ
ছাতকে দালানের ছাদে শাক-সবজী ও ফুল-ফলের বাগান করতে আগ্রহী হয়ে উঠছে তরুন প্রজন্মের এক ঝাঁক কৃষক। তারা কৃষি বিভাগের সহযোগিতায় ও আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহারের করে বেশ ক’টি ছাদে বাগান তৈরী করে আশানুরূ ফলন পেয়েছে। এভাবে যদি সকলেই আগ্রহী হয়ে উঠে তবে এখানে দালানের ছাদগুলো একসময় সবুজে ভরে উঠবে। ছাদ তৈরী বাগানে ফলবে লাউ, কুমড়া, টমেটো, শিমসহ নিত্যদিনের আহার্য সব সবজি ও বিভিন্ন দেশী-বিদেশী ফল। ছাদের ফুল বাগানগুলোতে গোলাপ, টগর, জুঁই, চামেলী ও রজনীগন্ধার মতো ফুল ছড়াবে মাতাল সৌরভ। আম, পেয়ারা, মাল্টা, আঙ্গুরসহ হরেক রকমের ফল হাত বাড়ালেই মিলবে এবং পারিবারিক চাহিদা পূরন করবে।

এভাবেই ছাদ তৈরী বাগানে শাক-সবজী ও ফলমুল উৎপাদনের মাধ্যমে এখানে কৃষিতে সবুজ বিপ্লব ঘটানোর স্বপ্নে বিভোর ছাতক উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর। এ স্বপ্ন লালন করে ইতিমধ্যে কাজও শুরু করেছে কৃষি বিভিাগ। এরই ধারাবাহিকতায় উপজেলার কালারুকা ইউনিয়নের গড়গাওঁ গ্রামে উপ-সহকারী কৃষি অফিসার মশিউর রহমানের পরামর্শে ব্যবসায়ী আশরাফুল ইসলাম তার নিজের বাড়ির ছাদে গড়ে তুলেছেন এক খন্ড সবুজ উদ্যান। কৃষি অফিসের সরাসরি তত্বাবধানে তার বাসার ছাদে মাল্টা, বেগুন, টমেটো, কাচা মরিচসহ নানান ধরনের সবজি ও ফলদ গাছের চাষ করে অভাবনীয় সাফল্য পেয়েছেন তিনি। ব্যবসায়ী আশরাফুল ইসলাম জানান, বর্তমানে বাজারে বিশুদ্ধ বা টাটকা ফলমুল ও শাক-সবজী পাওয়া কঠিন ব্যাপার। উপ-সহকারী কৃষি অফিসার মশিউর রহমানের পরামর্শ ও সহযোগিতায় পারিবারিক চাহিদা পুরনের আশায় অনেকটা শখের বসেই তিনি তার বাড়ির ছাদে গড়ে তুলেছেন এ বাগানটি। তিনি মনে করেন পরিবারের নিরাপদ খাদ্য ও পুষ্টির চাহিদা পূরণে এবং পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বাড়ির ছাদে বাগান করা অনেক গুরুত্ব বহন করে। তার বাড়ির ছাদে তৈরী বাগান দেখে আগ্রহী হয়ে উঠেছেনন অনেকেই। আশরাফুল জানান, আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করেই তিনি ড্রাম ও টবে গাছ লাগিয়েছেন। এতে তার ভবনের কোনো ধরনের ক্ষতি হচ্ছে না। গাছের নিয়মিত পরিচর্যার করে থাকেন তিনি। দৈনন্দিন কাজ শেষে অবসর সময় বাগানেই কাটান। কোন ধরনের রাসায়নিক সারের প্রয়োজন হয় না। তিনি বাগানে জৈব সার ব্যবহার করে থাকেন।

এব্যাপারে উপ-সহকারী কৃষি অফিসার মশিউর রহমান জানান, বাড়ির ছাদের এ বাগান শুধু শখের বিষয় নয়, পরিবেশ রক্ষায়ও রয়েছে এর বড় ভূমিকা। অবশ্য ছাদের ওপর যেসব বাগান দেখা যায় তার অধিকাংশই অপরিকল্পিত। একটু পরিকল্পিতভাবে বাগান করা হলে এটি পারিবারিক শাকসবজির চাহিদা সম্ভব। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তৌফিক হোসেন খান জানান, আবাদি জমি কমে যাওয়ায় দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠচ্ছে ছাদ কৃষি। মানুষকে ছাদ কৃষিতে এগিয়ে আসার লক্ষেই কাজ করে যাচ্ছি।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: