প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

রুবেল আকন্দ

ত্রিশাল প্রতিনিধি ( ময়মনসিংহ )

ত্রিশালে ভাইস চেয়ারম্যানের মাথায় মাটির টুপড়ি

১৪ জানুয়ারি ২০২০, ৪:৫৭:১৬

ত্রিশাল সংবাদদাতা:
ত্রিশাল উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হমায়ুন কবির আকন্দ। যিনি গ্রামের ছেলে। ছাত্রজীবন থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে লালন করে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতিতে সক্রিয়। একজন নিরহংকার ও সাদা মনের মানুষ। ছোটবেলা থেকে মানুষের কল্যাণে কাজ করা যার অভ্যাস। তিনি ত্রিশাল উপজেলা ছাত্রলীগের গুরুত্ব পুর্ণ দায়িত্বের পর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্বে থেকে যুবলীগের নেতৃত্ব দেন। রাজনীতিতে তার গায়ে কোন কলঙ্কের দাগ নেই।যেকোন মানুষ যে কোন সমস্যায় ও সহযোগিতায় তার দর্শন পেয়ে থাকেন অতিসহজে। যে কারণে গত উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে ত্রিশালবাসী তাকে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে তাদের সাথেই রেখেছেন। জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে তিনি জনকল্যাণে ও জনগণের উন্নয়নেই সময় কাটাচ্ছেন। তিনি তার পদ-পদবীর গর্ব করেন না। তারই দৃষ্টান্ত ত্রিশাল উপজেলার কাকচর রোড থেকে খাবলাপাড়া হয়ে বালিপাড়া রোড পর্যন্ত প্রায় পৌনে ১ কিলোমিটার কাচা রাস্তার কাজের উদ্ভোধনের সময় তিনি দেখিয়েছেন ।

উপজেলা রামপুর ইউনিয়নে কাবিখা প্রকল্পের এই রাস্তার নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল মতিন সরকার। শুধু লোক দেখানো ভাব নিয়ে নয়,সেই উদ্ভোধনী কাজের মাটির টুপড়ি নিজের মাথায় তুলে নিয়ে নির্মাণাধীন রাস্তায় টুপড়িতে থসকা মাটি ফেলেন ভাইস চেয়ারম্যান হুমায়ন কবীর আকন্দ। এ সময় রাস্তার নির্মাণ কাজে যোগ দেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা খানম রুমা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হক সরকার ও ইউপি সদস্য বৃন্দ । এসময় উপস্থিত থাকা স্থানীয় গন্যমান্য ও রাজনৈতিক নেতারাও অভাক হন তার এই দৃশ্য দেখে। উপজেলার একজন ভাইস চেয়ারম্যান হয়ে মাটির টুপড়ি মাথায় নেওয়া জনপ্রতিনিধি এদেশে খুব সহজে দেখা যায়না। তবে অনেকের ভাষ্য মতে-ভাইস চেয়ারম্যান হয়ে হুমায়ূন আকন্দের মাটির টুপড়ি মাথায় নেওয়া প্রকল্পে কর্মরত শ্রমিকদের কাজের উৎসাহ আরো বাড়িয়ে তুলবে। নিজে মাটির টুপড়ি নাথায় নিয়ে তিনি শ্রমিকদের বুঝিয়ে দিয়েছেন যে কোন কাজ করতে লজ্জার কিছু নেই।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: