প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

দুই সিটির নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতি কম

২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪৩:৩৬

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, নির্বাচন কমিশন (ইসি) ভোটের পরিবেশ তৈরি করে। তারা ভোটার আনে না। তাই আজ দুই সিটির নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতি যে কম, এর দায় ইসির না। দায় প্রার্থী ও রাজনৈতিক দলগুলোরই।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর উত্তরার আইইএস স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভোটকেন্দ্রে নিজের ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের সামনে সিইসি এসব কথা বলেন। এ সময় তাঁর সঙ্গে এই নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাসেম উপস্থিত ছিলেন।

গত দুই দিনের মতো আকাশ আজও মেঘলা। থেমে থেমে হালকা বৃষ্টি হয়েছে সকালে। এই পরিবেশে ডিএনসিসির মেয়র পদে উপনির্বাচন, নতুন ১৮টি ওয়ার্ডের সাধারণ নির্বাচন, দুইটি ওয়ার্ডে উপনির্বাচন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটির (ডিএসসিসি) নতুন ১৮টি ওয়ার্ডের সাধারণ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে। বিজয়ীরা নির্বাচিত হবেন এক বছরের জন্য।

আজ সকাল থেকেই ভোট কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি খুব কম।

সিইসিকে ‘ভোটারবিহীন’ এ নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন করা হলেন তিনি বলেন, এ নির্বাচন ভোটারবিহীন নয়। ভোটার উপস্থিতি কম। তবে দিন শেষে এই উপস্থিতি কিছুটা বাড়বে। তবে সার্বিক বিবেচনায় ভোটার উপস্থিতি কম।

ভোটার উপস্থিতি কম হওয়ার পেছনে দুটো কারণের কথা উল্লেখ করেন সিইসি। নুরুল হুদা বলেন, একটি কারণ হলো, এ নির্বাচনের মেয়াদ অল্প দিনের। ফলে ভোটারদের আগ্রহ কম। আবার এখানে সব দল অংশ নেয়নি। এতেও উপস্থিতি কম হয়েছে।

নির্বাচনে উপস্থিতির হার কম হওয়ায় নির্বাচন কমিশনের দায় আছে কি না—এমন প্রশ্নের উত্তরে সিইসি বলেন, নির্বাচন কমিশন ভোটের পরিবেশ তৈরি করে। ভোটারদের তারা বাড়ি বাড়ি গিয়ে আনে না। এ কাজ করে প্রার্থী ও রাজনৈতিক দল। তাই উপস্থিতি কমের দায় তাদের।

নির্বাচনে সব দল যে এল না ইসি কি তার দায় নেবে—সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি নুরুল হুদা বলেন, এটা রাজনৈতিক দলের দায়। এখানে নির্বাচন কমিশনের কোনো দায় নেই।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: