দোকানের নামে ‘মেসার্স’ বা ‘ট্রেডার্স’ লেখা থাকে কেন

২৩ নভেম্বর ২০১৯, ৬:৪০:৩১

বেশিরভাগ ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের নামের পাশে ব্রাদার্স/ট্রেডার্স/মেসার্স শব্দগুলো দেখা যায়। যেমন- তানভীর ব্রাদার্স, সুইট ট্রেডার্স, মেসার্স জাহিদ স্টোর। কখনো কি আপনার মনে প্রশ্ন জেগেছে, এই শব্দগুলো নামের পাশে যুক্ত করা হয় কেন? কিংবা এই শব্দগুলোর মানে কি? চলুন, সেসব প্রশ্নের উত্তর জানা যাক-
মসিয়ার (Monsieur) হলো এক ধরনের ফরাসি উপাধি; যার অর্থ জনাব/মহোদয়। মসিয়ার এর বহুবচন হলো মেইসিয়ারস, সংক্ষেপে বলা হয় মেসার্স (এর বাংলা অর্থ সর্বজনাব)। আমরা মেসার্স উচ্চারণ করলেও অভিধানে একে বলা হয় ‘মেসাজ’। জেনে রাখা ভালো, ‘মেসার্স’ শব্দটি ইংরেজি ‘মিস্টার’ শব্দের বহুবচন।

মেসার্স শব্দটি সাধারণত বিভিন্ন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নামের আগে ব্যবহৃত হতে দেখা যায়। কিন্তু এই শব্দটি বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ভুলভাবে ব্যবহার করা হয় আমাদের দেশে। অজ্ঞতা এবং অসচেতনতার কারণেই এটা হয়ে থাকে। যেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নাম কোনো মানুষের নামে এবং তার সঙ্গে অন্য আরো মানুষের সংশ্লিষ্টতা প্রকাশ করে (যেমন ‘নুরুল অ্যাণ্ড ব্রাদার্স’ বা ‘কেয়া অ্যাণ্ড কোম্পানি’), সেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নামের ক্ষেত্রে ‘মেসার্স’ শব্দটি ব্যবহার করা যেতে পারে।

তবে যেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নাম কোনো মানুষের নামে নয় (যেমন ‘হ্যালো ট্রেডার্স’ বা ‘হাতি কুরিয়ার সার্ভিস’), সেসব প্রতিষ্ঠানের নামের আগে ‘মেসার্স’ শব্দটির ব্যবহার সঠিক নয়। আবার আমরা যেমন নিজেরা নিজেদের নাম বলার ক্ষেত্রে ‘মিস্টার’ বা ‘জনাব’ বলিনা, তেমনই বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ‘মেসার্স’ শব্দটির ব্যবহার তেমনি হওয়া উচিত। অর্থাৎ কোনো বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নাম ‘নুরুল অ্যাণ্ড ব্রাদার্স’ বা ‘তানভীর অ্যাণ্ড কোম্পানি’ হলেও নিজেরা ‘মেসার্স’ শব্দটি ব্যবহার করা যাবে না।

এই ক্ষেত্রে ওই প্রতিষ্ঠানগুলোকে উদ্দেশ্য করে বাইরে থেকে কেউ যখন যোগাযোগ করবেন (যেমন চিঠি বা ই-মেইলের মাধ্যমে), তখন তারা লিখবেন ‘মেসার্স আলম অ্যাণ্ড ব্রাদার্স’ বা ‘মেসার্স গণেশ অ্যাণ্ড কোম্পানি’। এটি অনেকটা শোভনীয় পদ্ধতি। আবার ‘মিস্টার’ শব্দটি পুংলিঙ্গ এবং ‘মেসার্স’ শব্দটি তার বহুবচন হলেও কোনো বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নামে, কোনো স্ত্রীলোকের নামে হলে এবং তার সঙ্গে অন্য কেউ জড়িত থাকলে (যেমন ‘নিশি অ্যাণ্ড ব্রাদার্স’), উপরোক্ত নিয়মে এই ক্ষেত্রেও ‘মেসার্স’ শব্দটি ব্যবহার করা যায়।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: