প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন বিভিন্ন দলের সম্তাব্য . প্রার্থীদের দৌড় ঝাঁপ

৯ জানুয়ারি ২০১৯, ৯:৪৪:৩১

ফাইদুল ইসলাম,পীরগঞ্জ,(ঠাকুরগাঁও,প্রতিনিধি,)

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতে আসন্ন উপজেলা নির্বাচন নিয়ে সরগম হয়ে উঠেছে ঠাকুরগাওয়ের পীরগঞ্জ। পৌর শহর সহ পাড়া মহল্লায় এখন চলছে উপজেলা নির্বাচন নিয়ে আলাপ আলোচনা। কোন দল থেকে কে প্রার্থী হচ্ছেন এ নিয়ে ঝড় উঠছে চায়ের কাপে।

দলীয় মনোনয়ন পেতে দৌড় ঝাপ করেছেন বিভিন্ন দলের অর্ধ ডজনেরও অধিক প্রার্থী। দলীয় নেতা কর্মীদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করা সহ অংশ নিচ্ছেন নানা সমাজ সেবা মুলক কাজে। যে যেখানে পারছেন হাত মেলাচ্ছেন ভোটারদের সাথে। চাইছেন দোয়া আশীর্বাদ। শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও দোয়া চেয়ে অনেকে সেটেছেন ব্যানার-ফেস্টুনও।

আগামী মার্চ মাসে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এমন খবরে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে পীরগঞ্জ উপজেলার রাজনৈতিক অঙ্গন। কোন দল থেকে কাকে প্রার্থী করলে জয় নিশ্চিত হবে এমন ভাবনা এখন তাড়া করছে দলীয় নীতি নির্ধারকদের। দলীয় প্রার্থীদের বিষয়ে খোজ খবর রাখছেন তারা। নিচ্ছেন মাঠ পর্যায়ের খবরও। এরই মধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের এক সভায় দলীয় প্রার্থী নিয়ে প্রাথমিক আলোচনাও হয়েছে। বসে নেই জাতীয় পার্টিও। সদ্য সমাপ্ত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর পরই দলটির কর্মী সভায় উপজেলা নির্বাচন নিয়ে কথা হয়। নির্ধারণ করা হয় কর্ম পরিকল্পনা। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের অভিজ্ঞতার আলোকে এবার উপজেলা নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে দলটি। বিএনপি উপজেলা নির্বাচনে আংশ নিবে কিনা- এর উপর নির্ভর করবে জাপা’র নির্বাচনী কৌশল। তবে উপজেলা নির্বাচন বিষয়ে বিএনপি থেকে এখনো কোন ধরণের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে না। এদিকে বিভিন্ন দল থেকে মনোনয়ন পেতে দৌড় ঝাপ শুরু করেছেন স্বাম্ভাব্য প্রার্থীরা। তারা দলের স্থানীয় নেতা-কর্মী সহ উচ্চ পর্যায়েও যোগাযোগ রক্ষা করে চলছেন।

আওয়ামীলীগ থেকে পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইকরামুল হক, সাধারণ সম্পাদক আখতারুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী, সাংগঠনিক সম্পাদক ও পীরগঞ্জ সরকারী কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জিএস রেজওয়ানুল হক বিপ্লব এবং বঙ্গবন্ধু জয়বাংলা লীগের উপজেলা সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদ পারুল, জাতীয় পার্টি থেকে উপজেলা জাপা’র সহ সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান খায়রুল আনাম চৌধুরী ও সাংগঠনিক সম্পাদক অনিসুর রহমান আনিস, বিএনপি থেকে বর্তমান চেয়ারম্যান জিয়াউল ইসলাম জিয়া চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন পেতে কাজ করছেন। এদের মধ্যে ইকরামুল হক গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সামান্য ভোটের ব্যবধানে বিএনপি প্রার্থীর কাছে হেরে যান। তাই তিনি এবারো দলীয় মনোনয়ন চাইছেন।

৩ বারের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আখতারুল ইসলাম দলের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই মনে মনে উপজেলা নির্বাচন করার বাসনা পোষন করে আসছেন।

সম্প্রতি তিনি দলের নেতা-কর্মীদের কাছে তার ঐ সুপ্ত বাসনার কথা প্রকাশ করে তাদের নিজে দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করছেন। বিভিন্ন হামলা ও মামলার শিকার সাবেক ছাত্রনেতা গোলাম রব্বানীও এবার মনোনয়ন চাইবেন। আওয়ামীলীগের দুর্দিনে তরুণদের সাথে নিয়ে দলকে চাঙ্গা রাখতে অগ্রনী ভুমিকা পালন করেন তিনি। আ’লীগ থেকে দলীয় মনোনয়ন পেতে প্রায় দেড় বছর আগ থেকে মাঠে কাজ করছেন রেজওয়ানুল হক বিপ্লব। বিভিন্ন দিবস ও উৎসবে শুভেচ্ছা জানিয়ে ও দোয়া চেয়ে উপজেলার আনাচে কানাচে শত শত ফেস্টুন সেটেছেন তিনি। জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সদস্য সচিব ও চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ এর পরিচালক সহ এক ডজনেরও অধিক সামাজিক, সাংস্কৃতি সংগঠন, এতিমখানা এবং ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সভাপতি অথবা সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসার পাশাপাশি অংশ নিচ্ছেন বিভিন্ন সমাজ সেবামুলক কাজে। উপজেলা ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও কৃষকলীগের বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করে আসা হারুন উর রশিদ পারুলও এবার দলীয় মনোনয়ন চান।

সে লক্ষে কাজ করছেন। সদ্য সমাপ্ত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসনে নৌকা মার্কাকে জয়ী করতে রাত দিন নিরলস ভাবে কাজ করেছেন তিনি। অত্যন্ত মিষ্ঠভাষী পারুল সহজেই মানুষের সাথে মিশতে পারেন। জয় করতে পারেন সাধারণ মানুষের মন। গ্রাম গঞ্জে তার বেশ নাম ডাক রয়েছে। জাতীয় পার্টির স্বম্ভাব্য প্রার্থীরা বসে নেই। চালিয়ে যাচ্ছেন নির্বাচনী আলাপ আলোচনা। অপরদিকে মাঠে তৎপর রয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা জিয়াউল ইসলাম জিয়া। দল নিবাচনে অংশ নিলে তিনি প্রার্থী হবেন বলে জানান।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: