করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ৩,৫৩৩ ◈ আজকে মৃত্যু : ৩৩ ◈ মোট সুস্থ্য : ১০৫,৫২৩

পেট চালানোই বড় চ্যালেঞ্জ

১৬ জুন ২০২০, ৭:০৬:৪৬

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে জনসমাগম ও চলচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এতে কর্মহীন হয়ে পড়েছে ময়মনসিংহের বিভিন্ন উপজেলার হাজার হাজার কর্মজীবী মানুষ। বিশেষ করে কাজ হারিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন দিনমজুর, শ্রমজীবীসহ নিম্ন আয়ের মানুষ। সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন তারা। তাদের কাছে করোনাভাইরাস প্রতিরোধের চেয়ে পেট চালানোই বড় চ্যালেঞ্জ।

ইতিমধ্যে সরকারের পাশপাশি বিভিন্ন সংগঠন, জনপ্রতিনিধি ও ব্যক্তি উদ্যোগেও গৃহবন্ধী নিম্নআয়ের মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। কিন্তু সহায়তার পরিমাণ যথেষ্ট না হওয়ায় অনেক পরিবারই খাদ্য সংকটে পড়েছে। কথা হয় নান্দাইল পৌরসদরের চন্ডীপাশা নতুন বাজার এলাকার রিকশাচালক রমজানের সাথে। তিনি বলেন, তার সংসারে স্ত্রী সন্তানসহ ৮ জন সদস্য। রিকশা চালিয়েই এতোদিন সংসার চলত। বর্তমান অবস্থায় লুকিয়ে সড়কে বের হলেও যাত্রী পাওয়া যায় না। এতে আগের মতো আয় হচ্ছে না। এই অবস্থায় সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

চা বিক্রেতা হিরেন জানান, তিনি একাই পুরো পরিবার চালান। চা বিক্রর ওপর নির্ভরশীল পুরো পরিবার। এমনিতেই প্রতিদিন অসংখ্য শ্রমজীবি মানুষ তার এখানে চা খেতে আসতেন। কিন্তু গত তিনমাস ধরে দোকান বন্ধ। তাই এখন অর্থ সংকটের পাশপাশি খাবার সংকটেও পড়েছে।

ভ্যানচালক জালাল বলেন, আজ সকাল থাইক্যা রোডে আইছি গাড়ি লইয়া, এহন (বিকেল সাড়ে তিনটা) পর্যন্ত একটা ভাড়া পাইলাম না। কয়েকদিন ধইর‌্যা এই অবস্থা। রাইতে বাড়িত যাই খালি হাতে। অহন তো দেখতাছি না খাইয়া মরণ লাগবো।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: