করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ০ ◈ আজকে মৃত্যু : ০ ◈ মোট সুস্থ্য : ১৫৩,০৮৯
প্রচ্ছদ / Uncategorized / বিস্তারিত

বইয়ের প্রতি বাঙালির প্রাণের টান লক্ষ্য করা যায় বইমেলায়

২৪ নভেম্বর ২০১৯, ২:৫৫:৩০

ইব্রাহিম খলিল সাতক্ষীরা প্রতিনিধি::
শহরের শহিদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কের বইমেলায় শনিবার ছিলো দর্শণার্থীদের উপচে পড়া ভীড়। বইয়ের প্রতি বাঙালির প্রাণের টান লক্ষ্য করা যায় বইমেলায়। বইমেলায় বইয়ের পাশাপাশি ছিলো বৃক্ষমেলা। সাংবাদিক ইয়ারব হোসেনের গাছের পাঠশালা থেকে আনা হয় শত প্রজাতির বিলুপ্ত প্রায় বৃক্ষ। মেলায় দর্শণার্থীদের মাঝে সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন তুলে ধরছেন বৃক্ষ পরিচিতি। ‘কোন বৃক্ষের কোন গুণ’ তা অনর্গল বলে যাচ্ছেন সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন। কুড়িয়ে পাওয়া শাক সবজি খাওয়ার জন্য উৎসাহিত করছেন শিশু কিশোরদের। ওদিকে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক হুসাইন শওকতের প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় মঞ্চের সামনে দর্শক সারিতে উপচে পড়া ভীড়। চলছে কুইজ প্রতিযোগিতা। শিশুদের জন্য পৃথক কুইজ এবং বড়দের জন্য পৃথক কুইজ প্রতিযোগিতায় স্থান পায় সাধারণ জ্ঞানের অবারিত দুয়ার। মহান মুক্তিযুদ্ধের উপর ছোট ছোট প্রশ্নের মাধ্যমে দর্শকদের সামনে উপস্থাপন করা হয় জানা-অজানা তথ্যের ভা-ার।

মুক্তমঞ্চের এ আসরে অংশ নেন সবাই। প্রশ্নের প্রত্যেক উত্তরের জন্য ২ পয়েন্ট। ৪ পয়েন্ট পেলেই উত্তরদাতাকে দেওয়া হয় বই উপহার। এভাবে হেমন্তের সন্ধ্যায় প্রাণের টানে বইমেলায় কুইজ প্রতিযোগিতা হয়ে ওঠে দর্শকদের প্রাণের অনুষ্ঠান। বাঙালির জাতীয় জীবনে নতুন বই গন্ধ নিয়ে আসে অনাবিল আনন্দ। শহীদ আব্দুর রাজ্জাক পার্কে কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরির সুবর্ণ জয়ন্তী ও মুজিব বর্ষ উপলক্ষে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে চলছে বইমেলা। সুর তরঙ্গ আর ছন্দের আবেশ ছড়িয়ে প্রাণের বইমেলায় উঠেছিল তারুণ্যের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস। সেই সুর আর ছন্দের টানে বাঙালির প্রাণের আসর বইমেলায় শনিবার এসে মিলিত হয়েছিলেন শিশু, কিশোর, যুব, বৃদ্ধ সবাই। দিনভর সবশ্রেণির মানুষের উপস্থিতিতে মুখরিত ছিলো বইমেলা প্রাঙ্গন। উপস্থিত লেখক, পাঠক, প্রকাশক-সবার মাঝে ছিল প্রত্যাশার সুর। মেলায় গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ, কবিতা ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসসহ নতুন নতুন বই ছিল লক্ষ্যণীয়। মেলায় আসা বইপ্রেমীরা বলেন, প্রতিটি সৃষ্টির ভিন্ন একটি আনন্দ ও অনুভূতি থাকে। ছোটবেলা থেকেই লেখালেখির অভ্যাস এবং বিভিন্ন জায়গায় লেখালেখি করছি। কিন্তু বই প্রকাশের মাধ্যমে আলাদা আনন্দ ও তৃপ্তি আছে। মেলায় শিশু কিশোরদের নিয়ে ও অনেক বই আছে। গল্পের মধ্যে যেমন মজার বিষয় আছে তেমনি শিক্ষণীয় বিষয়ও আছে। এজন্য তরুণদের বই কেনা ও পড়ার প্রতি মনোযোগ বাড়াতে হবে।

বিক্রেতারা জানান, সাতক্ষীরার বইমেলায় এসে তারা খুশি। এ জেলার মানুষ বই প্রিয়। জ্ঞানের প্রতি মানুষের রয়েছে প্রবল আকর্ষণ। বইমেলার বিক্রেতারা আজ রবিবার প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য্যরে লীলাভূমি সুন্দরবন ভ্রমণ করবেন বলে জানান। জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামালের সহযোগিতায় প্রকাশক, লেখক ও বিক্রেতারা সুন্দরবন ভ্রমণ করবেন বলে সূত্র জানায়। আগামীকাল ২৫ নভেম্বর প্রাণের বইমেলার পর্দা নামবে বলে জানা গেছে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: