করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ৩,১৬৩ ◈ আজকে মৃত্যু : ৩৩ ◈ মোট সুস্থ্য : ১০৩,২২৭
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

ভাঙাবাঁধ দিয়ে ঢুকছে পানি জোয়ারের পানি ঢুকে প্লাবিত হচ্ছে গ্রাম

৪ জুন ২০২০, ৮:১২:৪০

মাসুম বিল্লাহ, শরণখোলা প্রতিনিধিঃ
চলছে পূর্ণিমার প্রভাব অপরদিকে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ভাঙা বেড়িবাঁধ। গত দুদিন ধরে বলেশ্বর নদীর জোয়ারের পানি ঢুকে প্লাবিত হচ্ছে গ্রাম। ঘরের মধ্যে হাঁটু পানি, রান্না বন্ধ, দুর্ভোগে বগী-গাবতলার তিন শতাধিক পরিবার।
ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের পর ২৭মে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক শামীম বাগেরহাটের শরণখোলায় ৩৫/১ পোল্ডারে বেড়িবাঁধের ক্ষতিগ্রস্ত গাবতলা-বগী ও শরণখোলা বাজার এলাকা পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি বগী-গাবতলার দুই কিলোমিটার ভেঙে যাওয়া বাঁধ সেনাবাহিনীর তত্ত¡াবধানে দ্রæত মেরামতের আশ্বাস দেন। প্রায় দুই সপ্তাহ অতিবাহিত হলেও রিং-বাঁধের কাজ শুরু না হওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে হতাশা ও ক্ষোভ জন্ম নিয়েছে।
বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দেখা গেছে, ভাঙা বাঁধা দিয়ে পানি ঢুকে ঘরবাড়ি প্লাবিত হচ্ছে। এসময় এলকাবাসীরা জানান, প্রতিদিন দুইবার জোয়ারের পানি ঢোকার কারনে ঘরে থাকার উপায় নেই। চুলায় পানি জমা হওয়ার কারনে অনেকের বাড়িতে রান্না বন্ধ।
বগী ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ রিয়াদুল পঞ্চায়েত ও দক্ষিণ-সাউথখালী ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ জাকির হোসেন জানান, ঘুর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্থ ভেড়িবাঁধের কয়েকটি পয়েন্ট দিয়ে দিনে দুইবার জোয়ায়ের পানিতে প্লাবিত হওয়ায় দুই ওয়ার্ডের নদীসংলগ্ন তিন শতাধিক পরিবার বর্তমানে মানবেতর জীবন-যাপণ করছে এবং মানুষের বসবাসের জন্য অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বলেশ্বর পাড়ের মানুষজন চরম আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। তারা সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধায়নে দ্রূত বিং-বাঁধের কাজ শুরু করার দাবি জানান।
শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সরদার মোস্তফা শাহিন জানান, বগী-গাবতলার ভাঙ্গন কবলিত দুই কিলোমিটার এলাকায় সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধায়নে রিং-ভেড়িবাঁধের কাজ সম্পন্ন করার কথা। ইতিমধ্যে তারা ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় প্রাথমিক জরিপ সম্পন্ন করেছেন। আশা করছি খুব শীগ্রই কাজ শুরু হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: