প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

ভারত-চীন থেকে বিমানে আনা হলো মশার ওষুধের নমুনা

৫ আগস্ট ২০১৯, ১১:৪৬:১৪

ভারত ও চীন থেকে মশার ওষুধের আরও তিনটি নমুনা আনল ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি)।

এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি বিমানযোগে সোমবার দুপুরে এ ওষুধ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়।

সোমবার বিকাল সাড়ে তিনটায় নগরভবনে নমুনাগুলোর মাঠপর্যায়ের পরীক্ষা চালানো হবে। ডিএসসিসির ঠিকাদার জসিম উদ্দিন সবুজ ও লিমিট এগ্রো লিমিটেড নমুনাগুলো সরবরাহ করছে। এদিকে ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে এদিন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করেছে ডিএসসিসি।

ডিএসসিসির মেয়র সাঈদ খোকন সোমবার বলেন, বিভিন্ন দেশ থেকে মশা মারার ওষুধ আনা হয়েছে। এগুলো পরীক্ষা করা হবে। পরীক্ষার সময় আইসিডিডিআরবিসহ বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকবেন। পরীক্ষার পর ওষুধের কার্যকারিতা সম্পর্কে জানা যাবে।

গত শুক্রবার প্রথম দফা ভারতীয় একটি কোম্পানির ওষুধের পরীক্ষা চালিয়েছিল ডিএসসিসি। ওই ওষুধের মাঠপর্যায়ের পরীক্ষায় সর্বোচ্চ মাত্র ২৬ শতাংশ মশা মারা যায়। ওষুধটি সরবরাহ করেন ডিএসসিসির ঠিকাদার জসিম উদ্দিন সবুজ।

পরদিন শনিবার ডকইয়ার্ড অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কার্স লিমিটেডের সরবরাহ করা ‘লিমিট লিকুইড ইনসেক্টিসাইড পিএইচপি-২০৫’ (রেডি ফর ইউজ) ওষুধের মাঠপর্যায়ের পরীক্ষা চালানো হয়। এটি কার্যকর বলে প্রতীয়মান হয়। এরপর ওই দুটি প্রতিষ্ঠান আরও তিনটি ওষুধের নমুনা সংগ্রহ করেছে। যার মাঠপর্যায়ের পরীক্ষা করা হবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সোমবার নগরভবনে বৈঠক করেন মেয়র সাঈদ খোকন। পরে ব্রিফিংয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বাংলাদেশি প্রতিনিধি ড. বারদিন জাং রানা বলেন, বাংলাদেশে এখন ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা অনেক বেশি। এটি নিয়ন্ত্রণে সরকার ও ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। আমরা তাদের বিভিন্ন পরামর্শ দিয়েছি। আশা করছি দ্রুতই ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে আসবে।

ওয়ার্ড পর্যায়ে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় : সরকারের পক্ষ থেকে ডিএসসিসির ৭৫টি ওয়ার্ডে নিয়োজিত কর্মকর্তাদের সঙ্গে সোমবার নগরভবনের মেয়র হানিফ মিলনায়তনে ডিএসসিসির মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব ঢাকাসহ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ছে। আমরা একটা সংকটময় মুহূর্ত পার করছি।

যত দ্রুত সম্ভব ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব থেকে দেশকে মুক্ত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী সুস্পষ্ট নির্দেশনা প্রদান করেছেন। তিনি বলেন, সরকারি সব সংস্থা ও জনগণের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে এ পরিস্থিতি থেকে মুক্ত হতে পারব বলে আশা করছি।

মেয়র আরও বলেন, সরকারের সব বিভাগ, সব সংস্থা প্রাণপণ চেষ্টা করে যাচ্ছে। ডেঙ্গু মোকাবেলায় আমাদের নাগরিকরা ক্রমেই সচেতন হয়ে উঠছেন। বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য দুটো জিনিস জরুরি একটি হচ্ছে সংস্থার উদ্যোগ, অপরটি জনগণের সচেতনতা এবং তাদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে পরিস্থিতি মোকাবেলা করা। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব শাহ কামাল প্রমুখ।

ভ্রাম্যমাণ আদালত : এডিস মশার লার্ভা নিধনে সোমবার ডিএসসিসির ১০১টি ভবনে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এর মধ্যে ১১টি ভবনে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া গেছে। এসব ভবনের মালিকদের এক লাখ ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ডিএসসিসির অঞ্চল-১ এর নির্বাহী কর্মকর্তা ও ঢাকা জেলা প্রশাসক অফিসের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ৩১টি বাড়ি পরিদর্শন করে দুটিতে এডিস মশার লার্ভা পান। দুই বাড়ির মালিকের কাছ থেকে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

অঞ্চল-২ এর নির্বাহী কর্মকর্তা ও ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ১১টি বাড়ি পরিদর্শন করে কোথাও মশার লার্ভা পাওয়া যায়নি। অঞ্চল-৩ এর নির্বাহী কর্মকর্তা ও ম্যাজিস্ট্রেট ২৫টি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একটিতে মশার লার্ভা পেয়েছেন। ওই বাড়ি মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অঞ্চল-৪ এর নির্বাহী কর্মকর্তা ও ম্যাজিস্ট্রেট ১৪টি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পাঁচটিতে এডিস মশার লার্ভা পান। ওই বাড়ি মালিকদের ২২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অঞ্চল-৫ এর নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক অফিসের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ৩০টি ভবনে অভিযান চালিয়ে তিনটিতে মশার লার্ভা পেয়েছেন। এসব বাড়ির মালিকদের এক লাখ ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: