মণিরামপুরে চাষীরা বোরো চাষে ব্যস্ত

২৬ জানুয়ারি ২০২০, ২:৪৪:৩১

উত্তম চক্রবর্তী,মণিরামপুর(যশোর)অফিস৷৷ যশোরের মণিরামপুর উপজেলা প্রত্যন্ত অঞ্চলে শুরু হয়েছে বোরো চাষাবাদ, জমি প্রস্তুত ও চারা রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকেরা।
চাষিরা জানায়, শেষ পর্যন্ত আবহাওয়া অনুকুলে এবং বিদ্যুৎ সরবরাহ ঠিকমতো থাকলে সুষ্ঠুভাবে ফসল ঘরে তুলতে পারবেন তারা। ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত মাঠে মাঠে চলছে পানি সেচ, জমি প্রস্তুত ও চারা রোপনের ব্যস্ততা।

উপজেলার রাজগঞ্জের ঝাঁপা গ্রামের কৃষক মোসলেম উদ্দিন জানান, বোরো ধানের জমি প্রস্তুত কাজ চলছে, আমরা স্যালো বা বাওড়ের পানি ম্যাশিন দ্বারা উঠিয়ে জমি চাষ বোরো ধানের চারা রোপনের জন্য প্রস্তুত করছি। বিদ্যুতের সরবরাহ বর্তমান অনেক ভালো।
এ অঞ্চলের আরো বেশ কিছু কৃষক জানায়, জমি চাষ ও রোপন, পানি সেচ এবং কাটা-মাড়াইসহ প্রায় ১০ হাজার টাকা বিঘা প্রতি খরচ হয়ে থাকে। বিঘা প্রতি ফলন হয় ২৫-৩০ মন। বর্তমান বাজারে ধানের দাম কম রয়েছে। যাদের নিজস্ব জমি তাদের কিছু থাকে। কিন্তু যারা বর্গাচাষী তাদের কিছুই থাকেনা। এতে করে প্রতিবছর আমাদের লোকসান গুনতে হয়। সরকার যদি সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান কেনে তাহলে ন্যায্য দাম পাওয়া যাবে।

উপজেলায় চলতি মৌসুমে চাষিদের মধ্যে বোরো চাষের ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা পরিলক্ষিত হচ্ছে। শীতের প্রকোপ কিছুটা কম থাকায় কৃষকরা কোমর বেঁধে মাঠে নেমে পড়েছেন।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জানিয়েছে, এবার মণিরামপুর উপজেলায় ২৮ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

ইউনিয়ন ভিত্তিক উপসহকারি কৃষি কর্মকর্তারা মাঠে মাঠে যেয়ে বোরো আবাদের জন্য প্রস্তুত করা জমি ও বোরো ধানের চারা রোপন করা জমি নিয়মিত দেখাশোনা ও কৃষকের বিভিন্ন পরামর্শ দিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: