fbpx
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

মণিরামপুরে পরীক্ষা কেন্দ্রে নকলের মহোৎসব, সচিব ও কক্ষ পরিদর্শকদের বহিস্কার

১৬ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৩২:২১

মণিরামপুর অফিস॥ মণিরামপুর উপজেলার নেংগুড়াহাট ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে গন-নকলের অভিযোগে পরীক্ষা কেন্দ্র বাতিল করা হয়েছে। পরীক্ষা কমিটি বাতিল, কেন্দ্র সচিব ও কক্ষ পরিদর্শকদের বহিস্কার করা হয়েছে এবং পরীক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট শিক্ষকদের এমপিও বাতিলের জন্য শিক্ষা মন্ত্রনালয়ে সুপারিশ করা হয়েছে।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা যায়, সুষ্ঠু ও নকলমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা গ্রহণের জন্য প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা (সিসি ক্যামেরা) আওতায় চলতি বছরে উপজেলার ৯ টি পরীক্ষা কেন্দ্রে এইচএসসি ও আলিমসহ সমমানের পরীক্ষা চলছে। এরই মধ্যে মঙ্গলবার(১৬ এপ্রিল) নেংগুড়াহাট ফাজিল মাদরাসা পরীক্ষা কেন্দ্রে আলিম ইংরেজি ১ম পত্রের পরীক্ষা চলাকালে স্থানীয় প্রশাসন ওই কেন্দ্রে গন-হারে নকলের অভিযোগ পান। এ অভিযোগ পেয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইয়েমা হাসান ওই কেন্দ্রে গিয়ে এর সত্যতা পান এবং আলামত হিসেবে ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করেন। এ খবরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারসহ পরীক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক কর্মকর্তাগন ওই কেন্দ্রে উপস্থিত হন। এর পর সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে ওই কেন্দ্রের পরীক্ষা সংক্রান্ত বিষয়টি পর্যালোচনা শেষে পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগন পরীক্ষা কেন্দ্র ও পরীক্ষা কমিটি বাতিল, কেন্দ্র সচিব ও কক্ষ পরিদর্শকদের বহিস্কারের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সাথে সাথে উপজেলা পল্লী জীবিকায়ন প্রকল্প কর্মকর্তাকে কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব দিয়ে অবশিষ্ট পরীক্ষাগুলো রাজগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) নেংগুড়াহাট ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে ৩টি কক্ষে ৬ জন কক্ষ পরিদর্শকের অধীনে ৯৯ জন পরীক্ষার্থী ইংরেজি ১ম পত্রের পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলো।

মণিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আহসান উল্লাহ শরিফী বলেন, সুষ্ঠু ও সুন্দর নকলমুক্ত পরিবেশে অন্যান্য পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সেখানে নেংগুড়াহাট ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে গন-হারে নকলের মহোৎসব চলায় প্রশাসনের পক্ষ কেন্দ্র বাতিল, কেন্দ্র সচিব (মাদরাসার অধ্যক্ষ) আব্দুল ওহাব ও কক্ষ পরিদর্শকদের বহিস্কার এবং এমপিও বাতিলের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, অবশিষ্ট পরীক্ষা গুলো রাজগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গন-নকলের ভিডিও ফুটেজ মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানো হবে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: