প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

মণিরামপুরে সরিষার বাম্পার ফলন

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৯:০৫:৩৩

উত্তম চক্রবর্তী,মণিরামপুর(যশোর)অফিস৷৷ কয়েকদিন আগেও মণিরামপুর উপজেলার বিস্তৃর্ণ মাঠে ছিলো সরিষার হলদে ফুলে হলুদিয়া। কয়েকদিনের ব্যবধানে তা আজ ফুলের পরিবর্তে ফল হয়ে সবুজ দানায় পরিপূর্ণ হয়েছে সরিষার প্রতিটি গাছ। সে দানায় দানায় আশায় বুক বেঁধেছে সরিষা চাষীরা। আর সে আশায় আনন্দিত মনে সরিষা তোলায় ব্যস্ত সময় পার করছেন মণিরামপুরের কৃষকেরা।
তবে ভাল ফলনের পাশাপাশি সরিষা বিক্রিতে ন্যায্য মূল্য পাওয়ার আশা করছেন চাষিরা। উপজেলা কৃষি বিভাগ জানায়, উপজেলা কৃষি অফিস থেকে প্রণোদনা হিসাবে কৃষকদের মাঝে পরিত্যাক্ত ও নিচু জমিতে চাষের জন্য মৌসুমের শুরুতেই কৃষকদের মাঝে প্রত্যেককে ১ কেজি করে উন্নত জাতের বারী-১৪ নামক সরিষা বীজ সহ ডিএপি ২০ কেজি, পটাম ১০ কেজি প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও নিজস্ব ভাবে উৎপাদিত দেশী সরিষা বীজ বুনেছিল অনেক কৃষক।

উপজেলার হানুয়ার, চন্ডিপুর, কোমলপুর, ঝাঁপা, খালিয়া, মোবারকপুর, নোয়ালি, কাঁঠালতলা, মশ্বিমনগর, নেংগুড়াহাট, হরিহরনগর, ষোলখাদা, এনায়েতপুর, খেদাপাড়া, রোহিতাসহ উপজেলার ১৭টি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের চাষিদের সাথে কথা বলে জানাগেছে- সরিষা চাষে এবার ফলন ভালো হয়েছে। চাষিরা এবার একর প্রতি ১৫ মণ পর্যন্ত সরিষা ঘরে তোলার আশা প্রকাশ করেছে। তারা ন্যায্য মূল্য পাওয়ার জোর দাবি করেন।
মণিরামপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস থেকে জানাগেছে- উপজেলায় সরিষা উৎপাদনে আমাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১৫০০ হেক্টর জমিতে। আমাদের মাঠ পর্যায়ের উপসহকারি কৃষি কর্মকর্তাদের সঠিক পরামর্শে কৃষকদের চাষকৃত সরিষার বাম্পার ফলন হয়েছে। ফলন ভালো ও দাম ভালো থাকায় আগামীতে আরো অনেকেই সরিষা চাষে এগিয়ে আসবে বলে আশা করা যায়।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: