করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ০ ◈ আজকে মৃত্যু : ০ ◈ মোট সুস্থ্য : ১১,৫৯০

মো. দ্বীন ইসলাম

চাঁদপুর প্রতিনিধি

মতলব উত্তরে অসহায় কৃষকের ধান কেটে দিল কৃষক লীগ

৫ মে ২০২০, ৪:৫০:২৪

মতলব উত্তরে অসহায় কৃষকের ধান কেটে দিল কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুক । কৃষক বাঁচলে বাঁচবে দেশ, প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার নির্দেশে এই শ্লোগান কে সামনে রোজা রেখে মতলব উত্তর উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুক এর নেতৃত্বে এখলাছপুরে অসহায় কৃষকের ধান কেটে দিলেন।
মঙ্গলবার (৫ মে) সকালে করোনার প্রভাবে প্রয়োজনীয় শ্রমিক সংকটে এখলাছপুর গ্রামের অসহায় কৃষক আনোয়ার হোসেন সিকদার এর ১ বিঘা জমির ধান কেটে দিয়ে সহযোগীতা করলেন কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুক।
কৃষক আনোয়ার হোসেন সিকদার বলেন, কয়েকদিন আগেই আমার ক্ষেতের পাকা ধান কাটার উপযুক্ত হয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে শ্রমিক পাচ্ছিলাম না। বিষয়টি জানার পর মতলব উত্তর উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুককের নেতৃত্বে মতলব উত্তর উপজেলা কৃষক লীগ নেতারা আমার ক্ষেতের ধান কেটে দিয়েছে। এতে আমি খুশি।
ধান কাটায় উপস্থিত ছিলেন, মতলব উত্তর উপজেলা কৃষক লীগ সদস্য মোজাম্মেল হক, মতলব উত্তর উপজেলা কৃষক লীগের দপ্তর সম্পাদক মো. আলী আশাদ, কৃষক লীগের সদস্য মো. মুকুল, এখলাছপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রেহান উদ্দিন নেতা, মতলব উত্তর উপজেলা কৃষক লীগের সহ-প্রচার সম্পাদক মো. মাইনুদ্দিন, এখলাছপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মো. বাদশা মিয়া, সহ-সভাপতি লিটন সরদার, আনোয়ার হোসেনের খান, এখলাছপুর ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন মেম্বার, ১০নং পশ্চিম ফতেপুর ইউনিয়নের কৃষক লীগ সভাপতি মো. ইলিয়াস মিয়াজী, ১১নং ফতেপুর পূর্ব ইউনিয়নের কৃষক লীগ সভাপতি ইমরান চৌধুরী রাজু’সহ নেতা কর্মীরা আমার জমির ধান কেটে দেন।
এই ব্যাপারে মতলব উত্তর উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিএম ফারুক বলেন, আজ আমরা জমির ধান কেটে দিয়েছি। কারণ শ্রমিক সংকটে পাকা ধান কাটতে না পারা নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় রয়েছেন সারা দেশের কৃষকরা। গত কদিন ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে চলতি মৌসুমের আগাম ইরি-বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। তবে ধানের বাম্পার ফলন হলেও করোনা আতঙ্কে ধানকাটা শ্রমিক সঙ্কট দেখা দেয়ায় ধান কাটতে পারছিলেন না। ওনার ধান পেকে ক্ষেতেই পড়ে যাচ্ছিল। তাই আমরা তার সহযোগিতার জন্য এগিয়ে এসেছি। ভবিষ্যতে এ সহযোগিতা অব্যাবহ থাকবে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: