fbpx

জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮০ জন

মতলব উত্তরে এসএসসিতে ৮৮.৪৩% ও দাখিলে ৯৫.১২% পাশ

৭ মে ২০১৮, ১:০৬:৩০

ফাইল ছবি: জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮০ জন মতলব উত্তরে এসএসসিতে ৮৮.৪৩% ও দাখিলে ৯৫.১২% পাশ

মো. দ্বীন ইসলাম ॥
মতলব উত্তর উপজেলায় এ বছর কুমিল্লা বোর্ডের অধীনে এসএসসিতে পাশের গড় হার ৮৮.৪৩। দাখিলে পাশের গড় হার ৯৫.১২। জিপি-৫ পেয়েছে এসএসসিতে ৭৮ জন এবং দাখিলে ২ জন। মতলব উত্তর উপজেলায় ৩৯টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ফলাফলে শীর্ষে সিদ্দিকা বেগম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় এবং সর্বনি¤œ নীলনগর উচ্চ বিদ্যালয়। এসএসসি শতভাগ দুটি ও দাখিলে ৫টি প্রতিষ্ঠান। মতলব উত্তর উপজেলার হাইস্কুল ও মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠান প্রধানদের সাথে মোবাইল ফোনে আলাপকালে জানা যায়, উপজেলার সিদ্দিকা বেগম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ৩৯ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৩৯ জন। পাশের হার শতভাগ। দি-কার্টর একাডেমী থেকে ২০ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২০ জন পাশের হার শতভাগ, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩ জন। সুজাতপুর নেছারিয়া উচ্চ বিদ্যালয় ৮১ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৭৯ জন। পাশের হার ৯৭.৫৩ জন, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ জন। ঝিনাইয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৭৮ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৭৬ জন, পাশের হার ৯৭.৪৩ জন, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ জন। রুহিতারপাড় ডিএম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৩০ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২৯ জন। পাশের হার ৯৬.৬৬। অলিপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৪৮ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৪৬ জন। পাশের হার ৯৫.৮৩। মাথাভাঙ্গা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৮৫ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৮১ জন। পাশের হার ৯৫.২৯, জিপিএ ৫ পেয়ছে ৫ জন। গাজীপুর কে.এ.এল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৬৩ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৫৯ জন। পাশের হার ৯৩.৬৩, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ জন। ইমামপুর পল্লীমঙ্গল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১০৫ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৯৮ জন। পাশের হার ৯৩.৩৩, জিপিএ ৫ পেয়েছে ২ জন। জীবগাঁও জেনারেল হক উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১২৭ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১১৮ জন। পাশের হার ৯২.৯১, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ জন। মমরুজকান্দি স্বপ্তগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৫৪ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১৪৩ জন। পাশের হার ৯২.৮৫, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩ জন। পাঁচানী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১০৯ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১০১ জন। পাশের হার ৯২.৬৬, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৬ জন। নাওভাঙ্গা জয়পুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৬৫ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৬০ জন। পাশের হার ৯২.৩১ জন। পাঠান বাজার আবেদীয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১২৬ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১১৫ জন। পাশের হার ৯১.২৬, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ জন। হাজী মঈনউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৯০ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৮২ জন। পাশের হার ৯১.১১ জন। শরীফ উল্যাহ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১০১ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৯২ জন। পাশের হার ৯১.০৮। চরকালিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৮৮ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১৬৮ জন। পাশের হার ৮৯.৩৬, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৭ জন। লুধুয়া উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ থেকে ১২৮ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১১৪ জন। পাশের হার ৮৯.০৬, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩ জন। কালিপুর উচ্চ বিদ্যালয় এ- কলেজ থেকে ২১৬ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১৯২ জন। পাশের হার ৮৮.৮৯। দশানী মোহনপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১১৭ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১০৪ জন। পাশের হার ৮৮.৮৯, জিপিএ ৫ পেয়েছে ২ জন। বাগানবাড়ী আইডিয়াল একাডেমী থেকে ১৬৭ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১৪৭ জন। পাশের হার ৮৮.০২, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩ জন। দূর্গাপুর জনকল্যাণ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১১৫ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১০০ জন। পাশের হার ৮৭.৭২। ফতেপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৮১ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৭১ জন। পাশের হার ৮৭.৬৫, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩ জন। নিশ্চিন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৫১ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১৩২ জন। পাশের হার ৮৭.৪১, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩ জন। ইন্দুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৪৫ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৪৮ জন। পাশের হার ৮৪.৪৪ জন। নাউরী আহমদিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২৩৪ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১৯৬ জন। পাশের হার ৮৩.৭৬ জন, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১১ জন। এখলাছপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৫০ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ১২৫ জন। পাশের হার ৮৩.৩৩ জন। চরকাশিম আলী মিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৫৫ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৪৬ জন। পাশের হার ৮৩.৬৩। ধনাগোদা তালতলী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৮৭ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৭২ জন। পাশের হার ৮২.৭৫, জিপিএ ৫ পেয়েছে ২ জন। ওটারচর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১১৬ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৯৩ জন। পাশের হার ৮০.১৭, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩ জন। ছেংগারচর মডেল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২৭৭ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২২২ জন। পাশের হার ৮০.১৪, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১০ জন। বদরপুর আকবর আলী খান উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৯৬ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৭৬ জন। পাশের হার ৭৯.১৬। মোজাদ্দেদীয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৯১ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৭২ জন। পাশের হার ৭৯.১২ জন। হাজী সিদ্দিকুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১২৬ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৯৯ জন। পাশের হার ৭৮.৭৫ জন, জিপিএ ৫ পেয়েছে ২ জন। চরপাথালিয়া নূরুল হুদা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৬৫ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৫০ জন। পাশের হার ৭৬.৯২ জন। নন্দলালপুর সামাদিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৫১জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৩৯ জন। পাশের হার ৭৬.৪৭ জন। শিকারীকান্দি আকবরীয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৬৭ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৪৮ জন। পাশের হার ৭১.৬৪ জন, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ জন। নীলনগর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ৮২ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৫৬ জন। পাশের হার ৬৮.২৯ জন।

মতলব উত্তরে দাখিল পরীক্ষায় : ফরাজীকান্দি আল ওয়াসিয়ে কামিল মাদ্রাসা থেকে ৪০ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৪০ জন। পাশের হার ১০০ ভাগ। রসূলপুর হাজী চাঁন বক্স দাখিল মাদ্রাসা থেকে ৩৭ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৩৭ জন। পাশের হার শতভাগ, জিপিএ ৫ পেয়েছে ২জন। বদরপুর আদমিয়া ফাজিল মাদ্রাসা থেকে ২৯ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২৯ জন। পাশের হার শতভাগ। হাসিমপুর আলিম মাদ্রাসা থেকে ২৯ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২৯ জন। পাশের হার শতভাগ। লুধুয়া আহম্মদিয়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে ২২ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২২ জন পাশের হার শতভাগ। আমিয়াপুর হযরত বিবি ফাতেমা (রাঃ) মহিলা মাদ্রাসা থেকে ৩৩ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৩২ জন পাশের হার ৯৬.৯৬% । সাড়ে পাঁচআনী হোসাইনিয়া ফাজিল মাদ্রাসা থেকে ৬৪ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৬২ জন পাশের হার ৯৬.৪৭%, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ জন। নেদায়ে ইসলাম মহিলা মাদ্রাসা থেকে ৬২ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৫৯ জন পাশের হার ৯৫.১৬%, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১ জন। দশানী আল আমিন বোরহানুল দাখিল মাদ্রাসা থেকে ৩৮ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৩৬ জন পাশের হার ৯৪.৭৩%। রাঢ়ীকান্দি দারুচ্ছুন্নাত দাখিল মাদ্রাসা থেকে ৩৩ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ৩০ জন পাশের হার ৯০.৯০%। আউলিয়াবাগ দাখিল মাদ্রাসা থেকে ২৫ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২২ জন পাশের হার ৮৮%। লবাইর কান্দি আল আমিন আলিম মাদ্রাসা থেকে ৩১ জন পরীক্ষা দিয়ে পাশ করেছে ২৫ জন পাশের হার ৮০.৬৪%।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: