প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

মো. দ্বীন ইসলাম

চাঁদপুর প্রতিনিধি

ইমামকে মারধরের প্রতিবাদে মতলব উত্তরে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী

২৯ নভেম্বর ২০১৯, ১০:২০:২৪

চাঁদপুরের মতলব উত্তরে মসজিদের ইমামকে মারধরের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী। উপজেলার দক্ষিণ মুন্সিরকান্দি, উত্তর ব্রাহ্মচনচক বাইতুল আমান নূর জামে মসজিদের ইমামকে গত ২৯ অক্টোবর স্থানীয় আলাউদ্দিন কেরানী মারধর করে নিজেই উল্টো এলাকার নিরীহ লোকের বিরুদ্ধে মামলা করাতে ফুসে উঠেছে এলাকাবাসী।
শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) বিকালে মুন্সিরকান্দি বাজার সড়কে এলাকার শত শত লোকজন মানবন্ধন করেন ও আলাউদ্দিন কেরানীর অপরাধের বিচার চান মানববন্ধনকারীরা। এসময় মসজিদ কমিটির সভাপতি মো. রুহুল আমিন বলেন, আলাউদ্দিন কেরানী একজন উশৃঙ্খলকারী লোক। সে প্রায়ই এলাকার মানুষকে অত্যাচার নির্যাতন করে এবং সে উল্টা নিরীহ লোকদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে।
মসজিদের সেক্রেটারী নজরুল ইসলাম, মানববন্ধনকারী নুরে আলম, শামীম মোল্লা, সবুজ খান, ইছা খান, আব্দুর রহিম, হারুনুর রশিদ, মানিক, জিলানী খান ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, আলাউদ্দিন কেরানী দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে এই এলাকার মানুষের অত্যাচার নির্যাতন করছে। সে একজন কুখ্যাত সন্ত্রাসী, তাই ভয়ে কেউ মুখ খুলে না। যা মন চায় সে তা-ই করে। শেষ পর্যন্ত মসজিদের ইমামকেও মেরেছে। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই প্রশাসনের কাছে। আলাউদ্দিন কেরানীর ভাই জালাল উদ্দিন বলেন, সে জীবন ভর মানুষকে এভাবেই হয়রানি করে আসছে। আমি ভাই আমাকেও মিথ্যা মামলা দিয়ে অনেক হয়রানি করেছে।
এলাকাবাসী জানান, ইমামকে মারধর করার পর এলাকাবাসী চেয়েছিল একটি সুষ্ঠু সমাধান করতে। আলাউদ্দিন কেরানী নিজে সময় ধার্য করেও পালিয়ে গিয়ে কোর্টে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। কাউকেই মান্যতা করেনি। আলাউদ্দিন কেরানী বর্তমানে পলাতক রয়েছেন বলেও জানায় মানববন্ধনকারীরা।
মসজিদের ইমাম মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, আলাউদ্দিন কেরানী মসজিদে আসলে আমি তাকে সালাম দিয়ে অর্ভ্যথনা জানাই। ওই সময় তিনি বলেন সালাম নাকি শুদ্ধ হয়নি। জবাবে আমি বলি তাহলে আপনি বলেন দিন কিভাবে সালাম দিতে হবে। এই কথা বলার সাথে সাথেই তিনি আমাকে মারপিট শুরু করে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: