প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

রুবেল আকন্দ

ত্রিশাল প্রতিনিধি ( ময়মনসিংহ )

মাদানীকে মন্ত্রী পরিষদে অর্ন্তভুক্তির জন্য মসজিদে দোয়া

৬ জানুয়ারি ২০১৯, ৭:০৬:১৫

রুবেল আকন্দ ত্রিশাল প্রতিনিধি :
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিংহ-৭ (ত্রিশাল) আসনে রেকর্ড পরিমান ভোট পেয়ে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়া মহাজোট মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব হাফেজ মাওলানা রুহুল আমীন মাদানীকে মন্ত্রী পরিষদে অর্ন্তভুক্তির জন্য শুক্রবার বাদ জুম্মা ত্রিশাল উপজেলার প্রতিটি গ্রামে ও ওয়ার্ডের মসজিদে মসজিদে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

১৯৭১ সালের পর মন্ত্রীত্ব পায়নি ত্রিশাল আসনটি।সর্ব স্তরের মানুষের প্রানের দাবী মাওলানা রুহুল আমীন মাদানীকে নব গঠিত মন্ত্রী পরিষদে অর্ন্তভুক্তি করার। তার এই বিজয়কে দলীয় জনপ্রিয়তা ধর্মী অনুভতি ব্যক্তি ইমেজ উন্নয়ন সততার অন্যন্য উদাহারণ হিসেবে দেখেছন ত্রিশালের মানুষ। হাফেজ মাওলানা মাহবুবুল ইসলাম বলেন এই প্রথম রুহুল আমীন মাদানীকে মন্ত্রী পরিষদে অর্ন্তভুক্তির জন্য আমরা একযোগে দোয়ার আয়োজন করেছি। এতো বিশাল ভোটের জয়ের পর থেকে ত্রিশালবাসী মাদানীকে ঘিরে স্বপ্ন দেখছেন । মদিনা থেকে পড়াশোনা শেষ করে মাদানী দেশে এসে সব সময় জনগণের কল্যাণে পাশে থেকে কাজ করে গেছেন। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে প্রথম বারে বিপুল ভোটেএমপি নির্বাচিত হবার পর ত্রিশালের উন্নয়নে প্রতিটা জায়গায় অবদান রেখেছেন। স্কুল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়,রাস্তাঘাট এবং মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে কাজ করে জনপ্রিয় নেতা হিসাবে সর্বস্তরের মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন। এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করে এলাকাবাসীর উন্নয়নের রুপকার হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছেন।

শিল্পবাণিজ্য অঞ্চল হওয়ায় নতুন নতুন বিনিয়োগ সৃষ্টিতেও সহায়তা করেছেন মাদানী। যার ফলশ্রুতিতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে নৌকা প্রতীকে নির্বাচনে দাড়ালে এলাকার দলমত নির্বিশেষে স্বর্বস্তরের জনতা ভোট দিয়ে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করেন প্রিয় এই মানুষটিকে। উপজেলার বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সভাপতি সম্পাদকদের দাবী মাদানীকে মন্ত্রী পরিষদে অর্ন্তভুক্তি করে জাতীয় কবি নজরুলের ত্রিশালকে আর উন্নয়ন করার জোর দাবী জানান।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: