fbpx
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / বিস্তারিত

মো. দ্বীন ইসলাম

মতলব উত্তর (চাঁদপুর)

মতলব উত্তরে উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শোকসভায়

মানুষকে ভালোবাসা ও বিশ্বাস করাই বঙ্গবন্ধুর স্বপরিবারে নিহত হওয়ার কারণ– এমপি রুহুল

১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৬:৫৬:৩১

চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শোকসভা প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- চাঁদপুর-২ (মতলব উত্তর-মতলব দক্ষিণ) নির্বাচনী আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এড. নুরুল আমিন রুহুল।

চাঁদপুর-২ (মতলব উত্তর-মতলব দক্ষিণ) আসনের সংসদ সদস্য এড. নুরুল আমিন রুহুল বলেছেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কাল রাতে নিষ্ঠুর ভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের প্রায় সকল সদস্য ও স্বজনদের নিষ্ঠুর ভাবে হত্যা করেছে খুনি মেজর জিয়া, ডালিম ও খন্দকার মোস্তাক এই চক্ররা। মানুষকে ভালোবাসা ও বিশ্বাস করাই বঙ্গবন্ধুর স্বপরিবারে নিহত হওয়ার উল্লেখযোগ্য কারণ। তিনি গতকাল রোববার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তবে একথা বলেন।
এড. নুরুল আমিন রুহুল আরো বলেন, যিনি এই বাংলাদেশ রাষ্ট্রের স্বপ্নদ্রষ্টা এবং প্রতিষ্ঠাতা তাকে এরকম নির্মমভাবে ঘাতকের বুলেটে নিহত হতে হবে, তা কল্পনার অতীত! বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্থপতি। এই বাংলাকে, বাংলার মানুষকে তিনি এতটাই বেশি ভালোবেসেছিলেন যে, তাদের কেউ তার সঙ্গে বিশ্বাঘাতকতা করতে পারে, এটা তিনি কল্পনাও করতে পারেননি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার নেপথ্যে শুধু ব্যক্তি মুজিবকে নয়, বাংলাদেশ নামক তাঁর সৃষ্ট রাষ্ট্রটাকেও হত্যা করা হয়েছিল।বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে রাজনৈতিক সম্পৃক্ততার ষড়যন্ত্র উদ্ঘাটন প্রয়োজন তাঁর সৃষ্ট দেশটাকে তাঁর স্বপ্নের সোনার বাংলায় পরিণত করার লক্ষ্যে। বঙ্গবন্ধু বহুবার হত্যার চেষ্টা হয়েছে স্বাধীনতার পূর্বাপর। ১৯৭৫ সালে ঘাতকরা সফল হয়েছে। বঙ্গববন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকেও ২১ বার হত্যার চেষ্টা হয়েছে। এখনও ষড়যন্ত্র চলছে।

তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সরকার দলবল নির্বিশেষে সকল মানুষকে সাথে নিয়ে দেশের উন্নয়ন করে যাচ্ছেন, আর উন্নয়নে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখছেন বাংলাদেশের মেয়েরা, মেয়েরা আজ কোন কাজে পিছিয়ে নাই, এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনে মেয়েরা যুক্ত থেকে সরকারের উন্নয়নকে এগিয়ে নিচ্ছে। বিশ্বের ইতিহাসে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের মতো নিষ্ঠুর হত্যাকান্ড আর ঘটেনি। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কাল রাতে নিষ্ঠুর ভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের প্রায় সকল সদস্য ও স্বজনদের নিষ্ঠুর ভাবে হত্যা করেছে খুনি মেজর জিয়া, ডালিম ও খন্দকার মোস্তাক এই চক্ররা।

উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পারভীন শরীফের সভাপতিত্বে এবং উপজেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক তাছলিমা আক্তার আখি’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহিনা আক্তার।
বক্তব্য রাখেন- মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহজাহান প্রধান, ছেংগারচর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান কাইয়ুম চৌধুরী, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোতাহার হোসেন খান সুফল, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান জহির, ঢাকা শাহবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আক্তার হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা কাজী মিজানুর রহমান, মেঘনা-ধনাগোদা সেচ প্রকল্প পানি ব্যবস্থাপনা ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সরকার আলাউদ্দিন, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ, সহ-সভাপতি ইয়ার হোসেন, দপ্তর সম্পাদক জসিম উদ্দিন, মতলব উত্তর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহবায়ক এড. মহসীন মিয়া মানিক, ছেংগারচর মহিলা লীগের নেত্রী নার্গিস আক্তার, উপজেলা যুব মহিলা লীগের যুগ্ম সম্পাদক জাহানারা আক্তার, মহিলা লীগের নেত্রী শিউলী আক্তার, মুক্তা আক্তার, তাছলিমা আক্তার নিপা, শিল্পী আক্তার, হাসিনা প্রধান, লাভলী আক্তার, আসমা আক্তার, নাজমা আক্তার, পারভীন আক্তার প্রমুখ।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: