প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

মিরসরাইয়ে টিসিবির ডিলার থাকলেও খোলাবাজারে বিক্রি হচ্ছে না পেঁয়াজ!

১৬ জানুয়ারি ২০২০, ৪:৫৮:০৮

ইকবাল হোসেন জীবন, মিরসরাই (চট্টগ্রাম)
পেঁয়াজের অস্বাভাবিক দাম কমানো ও বাজারে ঘাটতি মোকাবেলায় ট্রের্ডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) দেশের বিভিন্ন জেলা শহর ও উপজেলায় পেঁয়াজ বিক্রি করলেও মিরসরাইয়ে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে না। সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী জেলা শহর সহ বিভিন্ন স্থানে ৪৫ টাকা মূল্যে টিসিবি পেঁয়াজ বিক্রি করছে। মিরসরাইয়ের বিভিন্ন বাজারে পেঁয়াজ এখনো ১৬০-১৮০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
জানা গেছে, মিরসরাই উপজেলায় টিসিবি মনোনীত ৬টি ডিলার রয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলো হল মিরসরাই পৌরসভার মেসার্স শান্ত এন্টার প্রাইজ, বারইয়ারহাট পৌরসভার মেসার্স অহিদ এন্ড বাদ্রার্স, জোরারগঞ্জ বাজারের মেসার্স প্রীতি বাণিজ্য ভান্ডার, মেসার্স দত্ত বাদ্রার্স, ঠাকুরদিঘী বাজারের মেসার্স রিপন স্টোর, মেসার্স আহাম্মদ ট্রেডার্স। ২০১৫ সালের পর প্রতিষ্ঠানগুলোর কোনটির লাইসেন্স নবায়ন হয়নি। টিসিবি মনোনীত ডিলার রমজানে খোলা বাজারে চিনি, ছোলা বা চাল বিক্রি করার কথা থাকলেও মিরসরাইয়ে কোন পণ্য বিক্রি করা হয় না। ফলে সরকারের এ সেবা থেকে সব সময় বি ত থাকে উপজেলাবাসী।

মঙ্গলবার (১৫ জানুয়ারি) মিরসরাই পৌরবাজার ও মিঠাছরা বাজারে গিয়ে দেখা যায়, পাকিস্তান থেকে আমদানী করা পেঁয়াজ ১৮০ টাকা, চীন থেকে আসা পেঁয়াজ ১২০ টাকা, তুরস্ক থেকে আসা পেঁয়াজ ১৬০ টাকা ধরে বিক্রি করা হচ্ছে।
টিসিবি মনোনীত ডিলার মেসার্স রিপন স্টোরের মালিক নুর হোসেন সওদাগর বলেন, সরকার টিসিবির মাধ্যমে পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করার পর আমি চট্টগ্রাম আ লিক অফিসে যোগাযোগ করেছি; উপজেলা পর্যায়ে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির কোন সীদ্ধান্ত হয়নি বলে তারা জানিয়েছেন।
মেসার্স প্রীতি বাণিজ্য ভান্ডারের মালিক শ্যামল দত্ত বলেন, টিসিবির পণ্যের মান খারাপ হওয়ায় আমি টিসিবি পন্য বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছি। তাই লাইসেন্স আর নবায়ন করিনি।

টিসিবি চট্টগ্রাম আ লিক কার্যালয়ের উপ-উর্ধ্বতন কার্যনির্বাহী (অফিস প্রধান) জামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, পেঁয়াজের মজুদ ও চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের অনুমোদন স্বাপেক্ষে উপজেলায় পেঁয়াজ বিক্রির সীদ্ধান্ত নেওয়া হবে। চট্টগ্রাম উপজেলায় শুধুমাত্র পটিয়াতে টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। মিরসরাইয়ে যেসব ডিলারের লাইসেন্স নবায়ন আছে তারা যদি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে আবেদন করেন এবং ইউএনও যদি জেলা প্রশাসককে বলেন তাহলে তা বিবেচনা করা হবে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রুহুল আমিন বলেন, মিরসরাইয়ে টিসিবির তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সাথে আলোচনা করে লাইসেন্স নবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হবে। উপজেলায় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির জন্য চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করা হবে বলেও জানান তিনি।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: