করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ০ ◈ আজকে মৃত্যু : ০ ◈ মোট সুস্থ্য : ৪৯৪,৭৫৫
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

মুজিব বর্ষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার শরনখোলায় নুতন ঘরের চাবি পেল ৯৭ পরিবার

২৩ জানুয়ারি ২০২১, ৬:৩৮:১২

মাসুম বিল্লাহ :
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বর্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার হিসেবে বাগেরহাটের শরনখোলার ভূমিহীন ও গৃহহীন ৯৭ পরিবার জমি সহ সেমি পাকা ঘর পেয়ে ফিরে গেলেন তাদের নুতন ঠিকানায়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর আওতায় দরিদ্র জনগোষ্ঠির জন্য শরনখোলা উপজেলায় নির্মানাধীন ১৯৭ ঘরের সার্বিক দ্বায়িত্ব পালন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন। ২৩ জানুয়ারী (শনিবার) সকালে গনভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশজুড়ে ৬৬ হাজার ১৮৯টি পরিবারের কাছে নতুন ঘরের চাবি হস্তান্তর ও ঘরের উদ্ভোধন করেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্স শেষে একই দিন সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ৯৭টি পরিবারের হাতে তাদের নুতন ঘরের চাবি তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। এ সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা এম সাইফুল ইসলাম খোকন, ধানসাগর ইউপি চেয়ারম্যান মাইনুল ইসলাম টিপু, রােেয়ন্দা ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সহধর্মীনি মিসেস রোকসানা চৌধুরী, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার হেমায়েত উদ্দিন বাদশা, সমাজসেবা কর্মকর্তা অতীশ সরকার, সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রতন কুমার বল, শরনখোলা উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আঃ মালেক রেজা ও সাধারন সম্পাদক এমাদুল হক (শামীম) এবং উপকার ভোগী পরিবারের সদস্যরা সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধ শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে দেশব্যাপী ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর আওতায় আধুনিক দুই কক্ষ বিশিষ্ট সেমি পাকা ঘর নির্মানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে অর্থ বরাদ্ধ দেওয়া হয়। প্রতিটি ঘরের নির্মান ব্যয় ধরা হয় ১লাখ ৭৫ হাজার টাকা। তিনি আরো জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আজ দেশব্যাপী প্রায় ৬৬ হাজার ১৮৯টি ঘরের আনুষ্ঠানিক শুভ উদ্ভোধন করেছেন। তাই প্রাথমিক ভাবে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ৯৭ টি পরিবারের নিকট তাদের নুতন ঘরের চাবি হস্তান্তর করা হয়েছে এবং বাকী ঘরগুলোর নির্মান কাজ দ্রæত গতিতে এগিয়ে চলছে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: