করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ২,২৭৩ ◈ আজকে মৃত্যু : ২০ ◈ মোট সুস্থ্য : ৩৭৩,৬৭৬
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

যৌতুক মামলায় ইউপি সদস্য প্রধান শিক্ষক কারাগারে

১৯ নভেম্বর ২০২০, ৮:৫৬:১১

কামরুল হাসান মুরাদ , ঝালকাঠিঃ প্রথম স্ত্রী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা জেসমিন আক্তারের কাছে ২ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবীর মামলায় ঝালকাঠীর কাঠালিয়া উপজেলার শৌলজালিয়া ইউপি সদস্য, চিংরাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ ছগীর হোসেন কে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। বুধবার (১৮ নভেম্বর) ঝালকাঠির বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট (কাঠালিয়া) আদালতের বিচারক ছানিয়া আক্তার তার জামিনের আবেদন না মঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরনের আদেশ প্রদান করেন। বাদী পক্ষে সিনিয়র আইনজীবী মোঃ নাসির উদ্দিন কবির, এড. মুঃশামীম আলম ও এড.মানিক আচার্য এবং আসামী পক্ষে সিনিয়র আইনজীবী আঃরশিদ সিকদার মামলাটি পরিচালনা করেন।

প্রথম স্ত্রী স্কুল শিক্ষিকা জেসমিন আক্তারের সাথে আলাপকালে ও মামলা সূত্রে জানাগেছে, ২০০৪সালে পারিবারিক ভাবে চিংরাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের তৎকালীন সহকারী শিক্ষক মোঃ ছগীর হোসেনের সাথে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা জেসমিন আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তার স্বামীকে প্রমোশন নিয়ে প্রধান শিক্ষক হতে ও ইউপি সদস্য নির্বাচনের জন্য স্ত্রী জেসমিন কয়েক লাখ টাকা প্রদান করে।
পরবর্তী সময় শিক্ষক ও ইউপি সদস্য স্বামী ছগীর ২০১৭সালে স্ত্রী জেসমিনের অজান্তে কাঠালিয়া সরকারী কলেজের ক্লার্ক উ:আউরা গ্রাম নিবাসী শাহ জালালা আকনের স্ত্রী ও জমাদ্দারহাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা দুই সন্তানের জননী মাসুমা আক্তারকে গোপনে বিয়ে করে। ক্রমেই লোকমুখে বিষয়টি প্রথম স্ত্রী জেসমিন আক্তারের কানে পৌছলে তিনি স্বামীর কাছে বিষয়টি জানতে চায় ও নিজেও খোজ খবর নিয়ে ঘটনার সত্যতা পায়।

এ নিয়ে স্বামী ছগীর হোসেন প্রথম স্ত্রী জেসমিন আক্তারের কাছে দু’লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে ও যৌতুক দিলে সে দ্বিতীয় স্ত্রীকে তালাক দিয়ে প্রথম স্ত্রীর সাথে সংসার করবে বলে শর্ত দেয়। এ অবস্থায় প্রথম স্ত্রী জেসমিন আক্তার নিরুপায় হয়ে স্বামী চিংরাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও শৌলজালিয়া ইউপি সদস্য মোঃ ছগীর হোসেনের বিরুদ্ধে যৌতুক মামলা দায়ের করে বলে বাদী জানায়।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: