fbpx

রাজগঞ্জের মাঠে মাঠে সবুজের মাঝে দুলছে সোনালী শীষ

১৬ এপ্রিল ২০১৯, ১২:০৯:০১

উত্তম চক্রবর্তী,মণিরামপুর (যশোর)অফিস॥
যশোরের মণিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ অঞ্চলে বোরো ধান পাকা শুরু হয়েছে। এ অঞ্চলের কৃষকেরা ধান কাটার অপেক্ষায় এখন প্রহর গুনছেন। বর্তমানে রাজগঞ্জ অঞ্চলের মাঠে মাঠে সবুজের মাঝে সোনালী শীষ দুলছে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার রাজগঞ্জ অঞ্চলের ঝাঁপা, মশ্বিমনগর, চালুয়াহাটী, শ্যামকুড়, রোহিতা, খেদাপাড়া ও হরিহরনগর এই সাতটি ইউনিয়নে প্রায় ১৮ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো ফসল চাষাবাদ করা হয়েছে।
রাজগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, সবুজ ধান গাছে এখন সোনালী রংয়ের ধানের শীষ দুলছে। যা ক’দিন আগেও সবুজের সমারোহ ছিলো এ অঞ্চলে।

রাজগঞ্জের হানুয়ার ও ঝাঁপা গ্রামের কয়েকজন কৃষক জানিয়েছেন, আমাদের রোপনকৃত বোরো ধান এখন আধা পাকা সোনালী ধানের শীষ হয়েছে। এজন্য আমাদের মনে আনন্দের সৃষ্টি হচ্ছে। যদিও ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে একটু ক্ষতি হয়েছে। তারপরও আমাদের কষ্টার্জিত ফসল ঘরে তুলতে পারলেই আমরা খুশি। প্রাকৃতি আমাদের সহায় হলে ভাল ফলন আশা করছি। আমাদের ফসলের মাঠে সবুজের মাঝে সোনালী শীষ বাতাসে দুলছে। এ যেন এক অন্যরকম ভাললাগা। এখন সোনালী ফসল ঘরে তোলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। যেন মনকে আন্দোলিত করছে।

ইউনিয়ন ভিত্তিক কর্মরত কয়েকজন উপসহকারি কৃষি অফিসার বলেন, উপজেলার কৃষকরা তাদের কষ্টার্জিত ফসল ঘরে তুলতে পারেন সে লক্ষ্যে সার্বক্ষনিক কাজ করে যাচ্ছি। আমাদের কৃষি অফিস থেকে কৃষকদের পরামর্শ দিয়েছি ধান পাঁকার সাথে সাথে অপেক্ষা না করে ধান কাটা শুরু করতে। এখন পর্যন্ত মাঠে ৫% ধান পেকেছে। এ সাপ্তাহে ২৫% ধান পেকে যাবে। পনের দিনের মধ্যে ৫০% ধান পাকবে। এপ্রিলের ১৫ তারিখের মধ্যে পুরোধমে ধান কাটা শুরু হবে। এ অঞ্চলের পুরো ধান কাটতে আগামী মে মাসের ১৫-২০ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তিনি আরো বলেন, প্রকৃতি অনকূলে থাকলে চলতি বোরো মৌসুমে উপজেলার কৃষকরা বাম্পার ফসল গোলায় তুলতে পারবেন।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: