প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

রাজারহাটে উন্নয়নের ছোঁয়া

১৭ জানুয়ারি ২০২০, ৪:৪৭:৫৭

এ.এস.লিমন,রাজারহাট(কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ-
কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. এনামুল হক এর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় রাজারহাট সদর ইউনিয়নে উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে। উপজেলার ৩ নং রাজারহাট সদর ইউনিয়নে জনগণের ভোটে দু-দুবার নির্বাচিত বর্তমান চেয়ারম্যান মো. এনামুল হক এর প্রচেষ্টায় ও সার্বিক সহযোগীতায় স্বাস্থ্য,শিক্ষা,স্যানিটেশন,সড়ক যোগাযোগ থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রে এলাকার ব্যাপক উন্নয়নমুলক কাজ দ্রুত গতিতে বাস্তবায়িত হচ্ছে। এ ছাড়া এলজিএসপি প্রকল্পের আওতায় রাস্তা ঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। বিভিন্ন স্কুল,কলেজ, মাদ্রসার মেরামতসহ শিক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য হাই-লো বে সরবরাহ করা হয়েছে এবং চেয়ারম্যান নিজ উদ্যোগে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৈৗদ্যুতিক ফ্যান বিতরণ করেন। মাদ্রসার শিক্ষা ব্যবস্থা উন্নতিকরণ মসজিদ, মন্দির নিমার্ণ,বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে জনমত গঠন এবং জনসচেতনতা সৃষ্টি করে ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক সর্বমহলে প্রশংসা অর্জন করেছেন। জন্ম নিবন্ধন, কর আদায়, শালিশ বৈঠক স্বচ্ছতার মাধ্যমে গ্রাম্য আদালত পরিচালনা করায় স্থানীয়ভাবে সাধারণ মানুষ যে কোন সমস্যায় তার শরণাপন্ন হয়ে ন্যায় বিচার পাচ্ছেন। এ কারণে স্থানীয় থানা পুলিশের অনেকটাই মামলা মোকদ্দমা কমে যাচ্ছে। খেলাধুলার উন্নয়নে নিবেদিতভাবে ইউপি চেয়ারম্যান মো. এনামুল হক এলাকার খোঁজখবর নিয়ে যুব সমাজকে মাদক থেকে দূরে রেখে তাদেরকে খেলাধুলায় ফিরিয়ে আনছেন। এলাকায় ফুটবল,ভলিবল, ক্রিকেট, ব্যাটমেন্টন, থেকে শুরু করে বিভিন্ন রকম খেলাধুলা ও সামাজিক উন্নয়নমূলক কার্যক্রম তার পৃষ্ঠপোষকতায় পরিচালিত হচ্ছে।ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ এনামুল হক জানান, মাদক থেকে যুব সমাজকে রক্ষা করতে হবে। এ কারণে ক্রীড়া উন্নয়নে সর্বাত্মক কাজ করছি। বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে জনমত গঠনে স্থানীয় ইউপি সদস্যদের সহযোগিতায় রাজারহাট ইউনিয়নকে বাল্য বিবাহ মুক্ত ঘোষনা করা হয়েছে। এলাকায় এখন বাল্য বিবাহ নেই বললেই চলে। বিশেষ করে গ্রামের মুর্রব্বিদের পরামর্শে কাজ করে যাচ্ছি। আরো ভালোভাবে কাজ করার জন্য সকলের সহযোগিতা চাই ও আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: