১মণ ধানে ১কেজি ধানবীজ

রাজারহাটে ভেজাল ধানবীজে দিশেহারা কৃষক

২৮ নভেম্বর ২০১৮, ৩:৪০:২৮

এ.এস.লিমন রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রামের রাজারহাটের উপজেলার হাট-বাজারে নিম্নমানের ভেজাল ধানের বীজে সয়লাব হয়ে গেছে। সঠিক মনিটরিংয়ের অভাবে নিম্নমানের ভেজাল ধানের বীজ বিক্রেতারা দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠছে।

এসব নিম্নমানের বীজ কিনে কৃষকরা প্রতারিত হচ্ছেন। রাজারহাটে ব্যাপকহারে ধানের চাষ হয়ে থাকে। আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ী বীজ ভাণ্ডার খুলে বসেছেন। তারা অধিক লাভের জন্য নিজেরাই বাজার থেকে ধান কিনে চকচকে প্যাকেট তৈরি করে উন্নত জাত হিসেবে প্রচার করে অধিক মূল্যে বিক্রি করছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে,বুধবার (২৮নভেম্বর) দুপুরে রাজারহাট উপজেলার সদর বাজারে ধানবীজ বিক্রিতাগুলো বিধিবহির্ভূত উপায়ে প্যাকেটজাত করে ধানবীজ বিক্রয় করছেন।এতে কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

অপরদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সিনজেনটা-১২০৫, ১কেজি ধানবীজের দাম ৫শত টাকা, হীরা-৬ ৪শত টাকা,ব্রি-৫৮ ১০ কেজির বস্তা ৯শত টাকা দরে বিক্রি করছেন। ব্যবসায়ীরা কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে এই বীজ চড়া দামে বিক্রি করছেন।তুলনামূলক ভাবে উচ্চ ফলনশীল বীজধানের দাম চড়া।

এ সুযোগে একশ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ী কৃষকদের কাছ থেকে অধিক মূল্য হাতিয়ে নিচ্ছে। কৃষকরা বিএডিসি’র বীজ ক্রয় কেন্দ্র ও ডিলারদের দোকানে ধরনা দিয়েও বীজ পাচ্ছেন না। বিএডিসি’র ১০ কেজি ওজনের বীজের বস্তা ৩৪০ টাকা মূল্যে বিক্রি করার কথা থাকলেও অসাধু ব্যবসায়ীরা ৮০০ থেকে ১০০০ টাকা মূল্যে বস্তা গোপনে বিক্রি করছে বলে অভিযোগ রয়েছে।#

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: