প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

রাবি উপাচার্যকে হেয় পতিপন্ন করার চেষ্টায় লিপ্ত ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

২২ মে ২০১৯, ৯:৫২:১১

রাবি প্রতিনিধি:
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্য ড. এম আব্দুস সোবহানকে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে হেয় পতিপন্ন করার প্রচেষ্টায় লিপ্ত ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার দুপুরে তাজউদ্দিন আহমেদ সিনেট ভবনের সামনে রাবি বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম রেজার স লনায় চারুকলা বিভাগের শিক্ষক ও সহকারী প্রক্টর ড. হুমায়ুন কবির বলেন, মাননীয় উপচার্য এম আব্দুস সোবহান দ্বিতীয় মেয়াদে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য হিসেবে যোগদান করায় বিশ্ববিদ্যালয়ে একজন সৎ ও আর্দশবান শিক্ষক পেয়েছে। স্যারের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মনগড়া ও ভিত্তিহীন।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রজন্মলীগের সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ্ আল-মামুন বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিভাবক বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ মাননীয় উপাচার্য এম আব্দুস সোবহান স্যারের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে মিথ্যা, বানোয়াট তথ্যের ভিত্তিতে হেয় পতিপন্ন করার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। মহামান্য রাষ্ট্রপতি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য, তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কিছুই সঠিকভাবে হচ্ছে জেনে সমস্ত ফাইল অনুমোদন দিয়েছেন। এক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য স্যারের সকল কিছুই নিয়মের মধ্যে আছে। একজন ত্যাগী আওয়ামীলীগ শিক্ষক হিসেবে ১/১১ এর সময় নেতৃমুক্তি আন্দোলনে সামনের সারি থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন । যার কারনে স্যারকে জেল, জুলুম, অত্যাচার সহ্য করতে হয়েছে । দ্বিতীয়বার মাননীয় উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ দেওয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। স্যারের বিরুদ্ধে না জেনে বা উদ্দেশ্য প্রণীত হয়ে এহেন কৃতকর্ম করছেন তাদেরকে বলব আপনারা দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের ক্ষমা চান।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন রাবি শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, সাবেক সহ-সম্পাদক মো. মানিক, বন্ধবন্ধু প্রজন্মলীগের সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগের ছাত্রী বিষয়ক সহ সম্পাদক মোসা. ফারজানা আক্তার ববি।

এছাড়াও মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু প্রজন্মলীগ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার দপ্তর সম্পাদক মো. লিটন আলী, অর্থ সম্পাদক মো. সিরাজুল ইসলাম, ছাত্র বিষয়ক সম্পাদিকা সাফিয়াতুল কুবরা, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সভাপতি মো. মেহেদী হাসান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ১৫ মে উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহানের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে সাত দিনের মধ্যে পদ থেকে অপসরণ চেয়ে আইনি নোটিশ পাঠায় সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: