fbpx
প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

রিমান্ড শেষে লোকমান কারাগারে

৬ অক্টোবর ২০১৯, ৭:৪৭:২১

ক্যাসিনো কেলেঙ্কারীতে আলোচিত লোকমান হোসেন ভূইয়াকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। মোহামেডান স্পোটিং ক্লাব লিমিটেডের ডিরেক্টর ইনচার্জ ও বাংলাদেশে ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক লোকমানকে তিন দফা রিমান্ড শেষে রবিবার আদালতে হাজির করা হয়। ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দায়ের করা একটি মামলায় লোকমানকে রবিবার বিকেলে তেজগাঁও থানার থানার এসআই মুহাম্মদ কামরুল ইসলাম আদালতে হাজির করেন। মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে রাখার আবেদন জানান। অন্যদিকে লোকমানের পক্ষে জামিনের আবেদন করেন আইনজীবীরা। মহানগর হাকিম হাবিবুর রহমান জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করেন।

আদালতে দেয়া প্রতিবেদনে পুলিশ জানায়, জিজ্ঞাসাবাদে লোকমানের কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। উদ্ধারকৃত মাদক ও অন্যান্য বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। লোকমান মোহামেডান ক্লাবকে ব্যবহার করে মাদকের ব্যবসা করে আসছিলেন। তিনি ক্যাসিনো জুয়ার আসরে মাদকদ্রব্য সরবরাহ করতেন বলে সাক্ষ্য প্রমানে পাওয়া যাচ্ছে।

অভিযোগ রয়েছে লোকমান হোসেন বিদেশে কোটি কোটি টাকা পাচার করেছেন। অস্ট্রেলিয়ায় দুটি ব্যাংকে সাম্প্রতিক সময়ে তিনি ৪১ কোটি টাকা পাচার করেছেন। তার এসব টাকার বিষয়ে তদন্ত হচ্ছে। মোহামেডান ক্লাবে ক্যাসিনো হাউজ ভাড়া দিয়ে তিনি এই কোটি কোটি টাকা আয় করে তা বিদেশে পাচার করেছেন বলে অভিযোগে বলা হয়েছে।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে লোকমান হোসেনের মনিপুরীপাড়াস্থ বাড়িতে অভিযান চালায় র‌্যাব। তার শয়নকক্ষে তল্লাশী চালিয়ে চার বোতল বিদেশি মদ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাব বাদী হয়ে পরের দিন সন্ধ্যায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে। পরে তাঁকে তেজগাঁও থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব।

লোকমানকে গত ৩ সেপ্টেম্বর দুই দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। এর আগেও দুই দফায় তিনি চারদিন রিমান্ডে ছিলেন। গত ২৭ সেপ্টেম্বর তাকে দুই দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। এরপর ৩০ সেপ্টেম্বর আবার দুই দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: