fbpx
প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

রৌমারীতে নতুনবন্দর স্থল বন্দরের আশে পাশে হতে পারে আকর্ষণীয় পর্যটন স্পট

১৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১০:০৩:১৩

রাজিবপুর,রৌমারী,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ
কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার নতুনবন্দর গ্রামের স্থলবন্দরের আশে পাশে হতে পারে একটি অন্যতম আকর্ষণীয় পর্যটক স্পট। বিকেল হলেই প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য ফুটে ওঠে পুরো স্থল বন্দর জুড়ে। প্রতিদিন এক নজর ভারতের কাটাতার দেখতে ছুটে আসে শত শত মানুষ। শত শত মানুষ দেখে দুর থেকে দেখলে মনে হয় কোন পার্কে যেন ঘুরতে এসেছে ভ্রমন পিপাসুরা। প্রচারের মাধ্যমেই দর্শনীয় স্থান পর্যটকদের কাছে হয়ে ওঠতে পারে আরো জনপ্রিয়?

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নতুন বন্দর সীমান্তের ওপারে ভারতের নো-ম্যান্সল্যান্ডে অবস্থিত জয়বাংলা সড়ক। আর এই সড়কে জড়িয়ে আছে মহান মুক্তিযুদ্ধের গৌরবের ইতিহাসের সঙ্গে। মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতে প্রশিক্ষণ নিয়ে মুক্তিবাহিনীরা যখন সীমান্ত পার হয়ে দেশের মাটিতে পা রাখে তখন সবার মুখে একটাই শ্লোগান ছিল ‘জয় বাংলা’। আর এ কারণেই ভারতের অভ্যন্তরের ওই সড়কটি জয় বাংলা সড়ক নামেই পরিচিত।

যুদ্ধের সময় ভারতের অভ্যন্তরে নো-ম্যানস ল্যান্ডে এই তেঁতুল গাছের নিচে আশ্রয় নিয়েছিলো বাংলাদশী শরণার্থীরা। যুদ্ধের সময় ভারতের অভ্যন্তরে নো-ম্যানস ল্যান্ড ওই তেঁতুল গাছের নিকটে আশ্রয় নেওয়া লাখ লাখ বাংলাদেশি শরণার্থীর দুঃখ-বেদনার কাহিনী। মুক্তিযুদ্ধের সময়ে অসংখ্য শরণার্থীর স্বাক্ষী সমাধিস্থল এই তেঁতুল গাছ। ওই তেতুল গাছের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে জিঞ্জিরাম নদী। এক সময় ওই স্থল বন্দরে লোকজন আড্ডা না দিলে ও বর্তমানে ওই স্থল বন্দর হয়েছে স্কুল শিক্ষার্থী থেকে শুরু সাধারন মানুষের একটি মিনি পর্যটন স্থান।বিকেল হলে ঘুরতে আসে সবাই। বামনের চর গ্রামের মামুন, নতুনবন্দর গ্রামের রাশেদ, গুচ্ছগ্রামের হেলাল জানায় ,যদি স্থল বন্দর টি পর্যটনের আওতাভুক্ত করা হয় তাহলে পর্যটকদের দৃষ্টি কাড়বে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: