করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ২,৫২৩ ◈ আজকে মৃত্যু : ২৩ ◈ মোট সুস্থ্য : ৯,০১৫
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

লালমনিরহাটে ত্রাণের দাবিতে কর্মহীন মানুষের বিক্ষোভ

৯ এপ্রিল ২০২০, ১১:৪৭:২২

মোঃ হযরত আলী (লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ)

করোনা ভাইরাসে কারণে বাড়িতে বসে থাকা কর্মহীন মানুষেরা লালমনিরহাটের সদর উপজেলায় সরকারি ত্রাণ সহায়তার দাবিতে বিক্ষোভ করেন। পরে প্রশাসন এসে প্রয়োজনীয় ত্রান সহায়তা দেবার প্রতিশ্রুতি দিলে তারা ঘরে ফিরে যান।

বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের পূর্বদিকে ঢাকা-বুড়িমারী মহাসড়কে শহরের বালাটারী আদর্শ কলোনীবাসী এ বিক্ষোভ করেছেন।

এ পর্যন্ত তারা কোন ধরনের সরকারী অথবা বেসরকারী ত্রান ও খাদ্য সহায়তা পাননি বলে বিক্ষোভকারীরা অভিযোগ করেছেন। এসময় শতাধিক কর্মহীন মানুষ এতে অংশ নেন। পুলিশ বিক্ষুদ্ধ জনতাকে ঘরে ফেরানোর চেষ্ঠা করলে তারা আরো বিক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠেন।

পরিস্থিতি সামাল দিতে সহকারী কমিশনার শহিদুল ইসলাম সোহাগ ঘটনাস্থলে এসে বিক্ষুদ্ধ কর্মহীন শ্রমজীবি মানুষদের চালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় ত্রান দেবার আশ্বাস দিলে তারা শান্ত হন এবং ঘরে ফিরে যান।

এর আগে গতকাল বুধবার একই উপজেলার হাড়ীভাঙ্গা এলাকায় সরকারী ত্রাণের দাবিতে ওই এলাকার শতাধিক কর্মহীন মানুষ বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। তারপর ইউএনও-র কথা মতো ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর কর্মহীন মানুষের তালিকা করেন এবং রাতেই উপজেলা নির্বাহী অফিসার উত্তম কুমার রায় ও উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সুজন তালিকা অনুযায়ী ৬৮ জনকে ত্রাণ সহযোগীতা প্রদান করেন।

আদর্শ কলোনীর দিনমজুরের স্ত্রী আয়েশা বেগম (৪৫) জানান, দুদিন থেকে না খেয়ে রয়েছি। কেউ সহযোগীতা করেনি, কয়েকদিন আগে ত্রাণ দেবার কথা বলে কাউন্সিলর ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি নিয়ে গেলেও আজও ত্রাণ পাইনি। ক্ষুধার জ্বালা সইতে না পেরে বাধ্য হয়ে রাস্তায় দাড়িয়েছি।
“আমার ঘরে যে খাবার ছিলো তা দুদিন আগে শেষ হয়ে গেছে, কাজ কাম সব বন্ধ এখন খাবো কি আর এখন পর্যন্ত আমরা সরকারীভাবে কোনো সহযোগীতা পাইনি” এমনটিই জানিয়েছেন বালাটারী আদর্শ কলোনীর বাসিন্দা চায়ের দোকানদার রেজাউল হোসেন (৫০)। রিক্সাচালক ফরহাদ (২৫) জানান, সবাই শুধু আশ্বাস দেয় কেউ আর ত্রাণ দেয় না। “একবার, দুবার নয় তিনবার আইডি কার্ড নিয়েছে কাউন্সিলর মুকুল কিন্তু কোনো প্রকার ত্রাণ দেয়নি” আমরা কি না খেয়ে থাকবো স্যার”

এ বিষয়ে কাউন্সিলর মুকুল মিয়া বলেন, বালাটারী আদর্শ কলোনীতে ৪’শত ৫৫টি পরিবার রয়েছে তারা সকলেই দিনমজুর। মাত্র ৪০টি পরিবারকে তিনি ত্রাণ সহযোগীতা দিতে পেরেছেন। তাই তারা বিক্ষোভ করেছে। তিনি জানান, পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডটি অনেক বড়, এখানে দুটি কলোনী রয়েছে। কলোনী ছাড়াও অনেক দিনমজুর, কর্মহীন মানুষ রয়েছে তবে আমি স্লিপ পেয়েছি মাত্র ১৮৯টি। বরাদ্দ না থাকলে আমার কিইবা করার আছে।

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক আবু জাফর বলেন, যদি কেউ ত্রাণ না পেয়ে থাকে, যোগ্য লোক দেখে আমরা তাকে ত্রাণ দিবো। আমাদের কাছে পর্যাপ্ত পরিমানে ত্রাণ রয়েছে। আমরা সকল মেম্বার, চেয়ারম্যান, পৌর কাউন্সিলরদের বলেছি তালিকা করার জন্য, তালিকা পেলেই ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হবে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: