করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ০ ◈ আজকে মৃত্যু : ০ ◈ মোট সুস্থ্য : ৩১৫,১০৭
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

লোহাগড়ায় প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত কারিগররা

১৫ অক্টোবর ২০২০, ৬:২৬:০১

জহুরুল হক মিলু, লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি
হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা। আর
কদিন বাদেই দেবী দুর্গা আসছেন। দেবীর আগমনকে ঘিরে দেবীর
প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত এখন মৃৎ শিল্পীরা। দিন রাত পরিশ্রম করে তাদের
নিপুন হাতের ছোঁয়ায় তৈরি করছেন একেকটি অসাধারণ সুন্দর
প্রতিমা।
নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার বিভিন্ন মন্দির প্রাঙ্গনে নানা আকার আর
ঢংয়ের দুর্গা দেবীর মূর্তি বানানো হচ্ছে। লোহাগড়া উপজেলায়
হিন্দু সম্প্রদায়ের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গোৎসব
অনুষ্ঠিত হবে। আর এই উৎসবকে সামনে রেখে পূজা উদযাপনের
প্রস্তুতি যেন পুরোদমে এগিয়ে চলছে।
আসন্ন দুর্গাপূজাকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎ শিল্পী
কারিগররা। আর সেই প্রতিমা শিল্পীরা সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত
কাঁদামাটি, গেছে মাটির কাজ শেষ হলেই শুরু হবে রং তুলির
আঁচড়।খড়, কাঠ, বাঁশ আর সুতলি দিয়ে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময়
কাটাচ্ছেন।
দেবী দুর্গাসহ প্রতিমাগুলোকে মনোমুগ্ধকর অনিন্দ্য সুন্দর রূপ দিতে ও
নিখুঁতভাবে ফুটিয়ে তুলতে সর্বোচ্চ মনোযোগ দিয়ে কাজ করছেন
এই শিল্পীরা।
জানা গেছে, স্থানীয় মৃৎ শিল্পী ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে
কারিগররা লোহাগড়ায় এসে প্রতিমা তৈরির কাজ করছেন। দুর্গা
ছাড়াও লক্ষ্মী, সরস্বতী, কার্তিক, গণেশ, অসুর, সিংহ, মহিষ, পেঁচা,
হাঁস ও সর্পসহ প্রায় ১২টি মূর্তি তৈরি হচ্ছে নিপুন হাতে।
প্রতিমা তৈরির কারিগর শ্রীবাস কুমার পাল বলেন, এবছর মাত্র ১২টি
পূজা মন্ডপের কাজ করেছি।
লোহাগড়া উপজেলায় ১৫২টি পূজা মন্ডপে প্রতিমা তৈরি হচ্ছে।
প্রতিটি মন্ডপে প্রতিমা নির্মাণের পাশাপাশি চলছে সর্বজনীন
মন্দিরগুলোতে সাজসজ্জা।

আগামী ২১ অক্টোবর রাতে বেলতলায় ষষ্ঠী পূজার মধ্যদিয়ে শুরু হবে মুল দেবী
বন্দনা। এ অনুষ্ঠান ৫ দিনব্যাপী চলবে। অর্থাৎ ২৬ অক্টোবর মহাদশমীর
মধ্যদিয়ে শেষ হবে প্রতিমা বিসর্জন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রোসলিনা পারভীন বলেন, দুর্গাপূজা
নির্বিঘেœ অনুষ্ঠিত করার লক্ষ্যে কেন্দ্র থেকে যে নির্দেশনা আসবে
সে মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
লোহাগড়া থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই সাইফুল ইসলাম বলেন,
প্রতিমা তৈরিকালীন সময়ে যাতে প্রতিমার কোন প্রকার ক্ষতি না হয়
সেজন্য আয়োজক কমিটিকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। আয়োজক
কমিটির পাশাপাশি পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে টহল টিমও সতর্ক হয়ে
মাঠে কাজ করবে।
লোহাগড়া উপজেলার পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি প্রবীর কুমার কুন্ডু
মদন বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা
করা হবে।
লোহাগড়া উপজেলার কুন্দশী মালোপাড়া শ্রী শ্রী দুর্গা মন্দির
সাংগঠনিকসম্পাদক বিজয় বিশ^াস জানিয়েছেন, এ বছর উপজেলায়
সর্বমোট ১৫২টি পূজা অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: