fbpx
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ ফোরাম (SAYF) গঠিতঃ আছিফুর রহমান শাহীন কার্যকরী কমিটির সদস্য নির্বাচিত।

২২ অক্টোবর ২০১৯, ১২:৩৮:১২

মিরসরাই প্রতিনিধি:::
দক্ষিন এশিয়ার আট দেশের পঁয়তাল্লিশ জন তরুনদের নিয়ে গঠিত হল সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ ফোরাম (SAYF)।
বহুল প্রতিক্ষীত ও আলোচিত দক্ষিন এশিয়ার তরুনদের এই জোট আগামী এক বছরের জন্য বাংলাদেশের তরুণ রায়হান কবির রনো ও নেপালের তরুণ অভিনব চৌধুরী কে আহবায়ক করে পঁয়তাল্লিশ সদস্য সদস্যা নিয়ে কার্যকরী কমিটি ঘোষনা দিয়েছে।
বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, ভুটান,মালদ্বীপ আফগানিস্তান,শ্রীলঙ্কা,সম্মেলনে উপস্থিত এইসব দেশ থেকে ৪৫ সদস্য নিয়ে সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ ফোরাম(SAYF)গঠিত হয়!
উক্ত কমিটিতে দক্ষিণ এশিয়ার যুব নেতৃত্ব দেওয়ায় জন্য চট্টগ্রাম জেলার মিরসরাই উপজেলার ‘র সন্তান মো: আছিফুর রহমান শাহীন কে কার্যকরি সদস্য মনোনীত করা হয়েছে।

আগামী ২০২০ সালের মে মাসের মধ্যে ৮ দেশের পূর্নাঙ্গ কমিটি গঠনের পর জনাব আছিফুর রহমান শাহীন এর প্রস্তাব অনুযায়ী ও বাংলাদেশী তরুনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের শহরে ২০২০ সালের জুলাই মাসে কক্সবাজারে সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ ফোরামের ১ম কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হবে।

আছিফুর রহমান শাহীন উনার অনুভূতি জানতে চাইলে জানান এতো দিন বাংলাদেশে বিভিন্ন সংগঠনে কাজ করার সোভাগ্য হয়েছে। এবার প্রথম দেশের বাহিরে কাজ করার সুযোগ পেলাম। দেশের বাহিরে বাংলাদেশকে তুলে ধরার আকুল প্রয়াস থাকবে।
আমি আমার এই সুযোগ এর যোগ্যমুল্যায় করবো। আমি চীর কৃতজ্ঞতা জানাই সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ ফোরামের আহবায়ক জনাব রায়হান কবির রনো ভাই এর প্রতি। আমি আরোও স্মরণ করছি কৃতজ্ঞ চিত্তে আমার অভিভাবক যার আকুণ্ঠ সমর্থন আমার কাজের সকল অনুপ্রেরণা যিনি প্রথম আমাকে দেশের বাহিরে ডেলিগটস হওয়ার সুযোগ করে দেন যিনি হাজারো তরুণ এর স্বপ্নের আইকন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপকমিটি সদস্য, জুনিয়র চেম্বার চট্টগ্রামের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জনাব নিয়াজ মোর্শেদ এলিট ভাই এর প্রতি।
আমি স্মরণ করছি ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি আমার আব্বা আম্মাকে।যাঁদের ত্যাগের বিনিময়ে আমি এত দূর এসেছি।
আছিফুর রহমান শাহীন এর আগেও ভারত সরকারের ডেলিগটস হয়ে ভারত, নেপাল বাংলাদেশ ২য় কনফারেন্স -নেপাল,ইন্টারন্যাশনাল ইয়ুথ পলিসি কনফারেন্স -নেপাল এ অংশগ্রহণ করেন।

বর্তমানে নেপালের ইয়ুথ রিসার্চ এবং ডেভেলভমেন্ট (ওয়াই. ডি. সি.)র কান্ট্রি কোঅরডিনেটর হিসাবে দ্বায়িত্ব পালন করছেন।
তিনি ঢাকা ব্রাদার্স ইউনিয়ন ক্রিকেট কমিটির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য। আরোও যুক্ত আছেন কালের কণ্ঠ শুভ সংঘের চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সভাপতি হিসাবে। প্রফেশনালি তিনি একজন ফার্মাসিস্ট ও তরুণ উদ্যোগতা।বাংলাদেশ থেকে নির্বাচিত সদস্যরা হলেন আহবায়ক -রায়হান কবির রনো।কার্যনির্বাহী সদস্য -সুকান্ত দাশ, আছিফুর রহমান শাহীন, মাফরুহা আক্তার আখি,তাজুল ইশলাম,মাসরুফা জান্নাত, নজরুল ইশলাম,নাইমুল ইশলাম।
মোট আট দেশ থেকে পঁয়তাল্লিশ জন তরুনদের নিয়ে কমিটি গঠিত হয়। বাংলাদেশ থেকে একজন আহবায়ক ও সাতজন সদস্য তরুণ নির্বাচিত হন।

কলকাতার হাতির বাগ, সুবাস ভবনে সাউথ এশিয়ান ইয়ুথ ফোরামের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ভারত বাংলাদেশ পাকিস্তান পিপলস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক প্রবীণ কমরেড মানিক সমারদার। এর আগে তিন জাতি সম্মেলনে আরোও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ থেকে আগত জাসদ সভাপতি জনাব মাইন উদ্দিন খান বাদল (এম. পি)।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: