fbpx
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

মো. দ্বীন ইসলাম

মতলব উত্তর (চাঁদপুর)

সিনিয়র সহকারী সচিব হলেন মতলব উত্তরের এসিল্যান্ড শুভাশিস ঘোষ

২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১:১৪:২৫

সহকারী সিনিয়র সচিব হলেন মতলব উত্তরের এসিল্যান্ড শুভাশিস ঘোষ। বিসিএস ৩৩তম ব্যাচ। সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসাবে মতলব উত্তরে কর্মরত আছেন প্রায় দেড় বছর। নিজ বাড়ী চট্টগ্রাম হলেও মতলব উত্তরের মানুষকে স্বল্প সময়ের মধ্যে আপন করে নিয়েছেন। যোগদানের পর থেকেই তিনি প্রতিনিয়ত চেষ্টা করছেন মতলব উত্তর বাসীকে ঘুষ ও দুর্নীতি মুক্ত পরিবেশে সব ধরনের সেবা প্রদান করতে।

তাঁর বিষয়ে কথা হয় কয়েকজন ইউনিয়ন ভূূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তার সাথে তাদের বক্তব্যের মূল হচ্ছে মনের মধ্যে সৎ সাহস না থাকলে এবং নিজে দুর্নীতিমুক্ত ও সৎ কর্মকর্তা না হলে এভাবে কেউ বলতে পারেননা, যেটা মতলব উত্তর উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি শুভাশিস ঘোষ শুধু বলেননি করেও দেখাচ্ছেন। অফিসের বিভিন্ন জায়গায় টাঙ্গিয়ে দিয়েছেন আমি ও আমার অফিস দুর্নীতি মুক্ত সাইনবোর্ডটি, শুধুমাত্র সাইনবোর্ড টাঙ্গিয়ে ক্রান্ত হননি অনেকটা দালাল ও তদবিরবাজ মুক্ত করেছেন উপজেলাধীন সকল ইউনিয়ন ভূমি অফিসকে। কোন কাজে দিতে হয়না ঘুষ, বিচার প্রার্থীদের গুনতে হয়না অপেক্ষার প্রহর, মনযোগ সহকারে অভিযোগ শোনার পর সাথে সাথে ব্যাবস্থা নিচ্ছেন অথবা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে নির্দেশ দিচ্ছেন।

প্রতিনিয়ত মনিটরিং করছেন উনার অধীনে কর্মরত সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের এছাড়াও নির্দেশনা দিয়েছেন অফিসে সেবা প্রার্থীদের কোনরূপ ঘুষ ছাড়া সেবা দিতে, অন্যথায় অভিযুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দেন তিনি।এক কথায় উনি মতলব উত্তরে চাকুরী করতে আসেননাই, ওনি এসেছেন সাধারন মানুষকে ভূমি সংক্রান্ত সেবা দিতে। কেননা, চাকুরী করা সহজ কিন্তু সেবা দেয়া অনেক কঠিন।

সদ্য সহকারী সিনিয়র সচিব হিসাবে পদোন্নতি পাওয়া শুভাশিস ঘোষ এর সাথে কথা হলে তিনি জানান,
মতলব উত্তরে এসেছি আমার উপর রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করতে। দায়িত্ব পালন শেষে একসময় আমাকেও এখান থেকে বদলি হয়ে অন্যত্র চলে যেতে হবে। এই যাবার বেলায় যাতে আমার সম্পাদিত কর্ম নিয়ে কেউ কোন প্রকার নেতিবাচক সমালোচনা করতে না পারেন, সেভাবেই শতভাগ সঠিক দায়িত্ব পালন করতে চাই। প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে সরকারের গৃহীত কর্মসূচি সুষ্ঠুাবে বাস্তবায়নের মাধ্যমে জনগনের সার্বিক কল্যাণ নিশ্চিত করাই আমাদের মূল লক্ষ্য।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: