করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ২,০২৯ ◈ আজকে মৃত্যু : ১৫ ◈ মোট সুস্থ্য : ৮,৪২৫
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

সীতাকুণ্ডে ঈদের দিন ৮শ মধ্যবিত্ত-দরিদ্র পরিবারে খাবার বিতরন করবে জিনিয়াস স্কলারশীপ

২৩ মে ২০২০, ২:০২:৩৬

মোঃ ইমরান হোসেন, সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) থেকেঃ ঈদের দিন সীতাকুণ্ড পৌরসভাধীন এলাকায় ৮শ মধ্যবিত্ত ও দরিদ্র পরিবারের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরন করা হবে। ব্যতিক্রমী এই উদ্যোগ নিয়েছে জিনিয়াস স্কলারশীপ।

সব সময় ব্যতিক্রমী সব কাজ করে আলোচনায় জিনিয়াস স্কলারশীপ। এর আগে জিনিয়াস স্কলারশীপ কয়েক দফায় মধ্যবিত্ত পরিবারের পাশে দাড়িয়েছিলেন। মাত্র ৭০ টাকার বিনিময়ে ৫৮০ টাকার নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য তুলে দেন শতাধিক মধ্যবিত্তদের হাতে। সে ৭০ টাকায় নতুন একটি ফান্ড করে ৭০ টাকায় আবারো মুরগিসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য দেন শতাধিক কোচিং মাষ্টার, বিভিন্ন বিদ্যালয়ের অসহায় কর্মচারীদের। পরবর্তীতে তৃতীয় দফায় এবার নতুন আরেকটি ফান্ড গঠন করে ঈদের দিন ৮শ পরিবারকে রান্না করা খাবার বিতরন করতে যাচ্ছে জিনিয়াস স্কলারশীপ।

জিনিয়াস স্কলারশীপ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাহেদ আহমেদকে এসব কাজে সহযোগীতা করছেন এডভোকেট আবদুল্লাহ আল নোমান, মোঃ ইউসুফ নবী (জুনি. ডিজাইনার,প্যাসিফিক জিন্স), মোঃ আরিফুল ইসলাম নাঈম, মোঃ মুসলিম উদ্দিন, জাহেদ হাসান রাকিব, সাইফুল ইসলাম ফাহাদ, এহসান উল আলম।

জিনিয়াস স্কলারশীপ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাহেদ আহমেদ জানান, সকলের সহযোগীতা ও ভালবাসায় আমরা দেশের দূর্যোগকালীন সময়ে করোনাকালে মানুষের পাশে দাড়িয়েছি। আমরা দরিদ্র পরিবারগুলোর পাশাপাশি মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোকেও সহযোগীতা করেছি। প্রতিটি প্যাকেটে ৫৮০ টাকার নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য ছিল। এবং তা মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোকে মাত্র ৭০ টাকার বিনিময়ে দিয়েছি। ৭০ টাকায় নেয়ার উদ্দেশ্য ছিল যাতে করে কোন মধ্যবিত্ত পরিবার ত্রাণ হিসেবে লজ্জা না পান, দ্বিতীয়ত আমরা আরেকটি ফান্ড করে যাতে অন্যদেরকেও আরো কিছু সহযোগীতা করা যায়। এবার আমরা ঈদে সীতাকুণ্ড পৌরসভাধীন এলাকায় রান্না করা খাবার বিতরন করতে যাচ্ছি। সকলের সহযোগীতা পেলে আমরা এই যাত্রা অব্যাহত রাখব ইনশাআল্লাহ। এসব কাজে আমি বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানায় যারা আমাকে সময় ও শ্রম দিয়ে নিরলস সহযোগীতা করে যাচ্ছেন।

এছাড়া আমাদের এই মানবিক সেবাটি আমাদের সীমিত সামর্থ্যের কারণে অল্প পরিসরে পরিচালিত হচ্ছে। তবে হৃদয়বান মানুষেরা এগিয়ে এলে আমরা, মানবিক সেবাটি চালিয়ে যাব।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: