fbpx
প্রচ্ছদ / শিক্ষা / বিস্তারিত

৭ কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা

১৭ জুলাই ২০১৯, ৭:১৪:১৪

মোজাম্মেল হক, ঢাবি প্রতিনিধি :

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলসহ চার দফা দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। একইসঙ্গে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় আবারও আন্দোলনে মাঠে থাকার ঘোষণা দেয়। নতুন এই কর্মসূচি ঘোষণা দিয়ে শাহবাগ মোড়ের অবরোধ তুলে নেয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা। দুপুর ২টার দিকে অবস্থান থেকে সরে যায়। এরপর এই এলাকায় যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী রাজু ভাস্কর্যের সামনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলসহ ৪ দফা দাবিতে জমায়েত হতে শুরু করে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা। পরে টিএসসি ও শাহবাগ মোড় অবরোধ করে রাখে আন্দোলনকারীরা। ফলে রাজধানীর এই ব্যস্ততম এলাকা জুড়ে অচল অবস্থা সৃষ্টি হয়। ভোগান্তিতে পড়তে হয় পথচারীদের।

অধিভুক্তি বাতিলসহ দাবিসমূহ হলো- চলতি শিক্ষাবর্ষ থেকেই অধিভুক্ত সাত কলেজ বাতিল করা; দুই মাসের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পরীক্ষার ফলাফল দেওয়া; বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রম ডিজিটালাইজেশন করা এবং ক্যাম্পাসে যানবাহন নিয়ন্ত্রণ এবং রিকশা ভাড়া নির্ধারণ করা।

আন্দোলনের নেতৃত্বে থাকা ‘সাত কলেজ বাতিল চাই’ কমিটির মুখপাত্র ব্যবস্থাপনা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মো. শাকিল মিয়া বলেন, আমরা আমাদের চারটি দাবি নিয়ে এর আগে প্রশাসনকে আল্টিমেটাম দিয়েছিলাম। কিন্তু প্রশাসন আমাদের দাবি মানে নাই। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা এ আন্দোলন চালিয়ে যাবো।

তিনি আরও বলেন, আজকের মত আন্দোলনের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়েছে। আগামীকাল থেকে সকল ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া একইভাবে আগামীকাল ১১টায় আবার আন্দোলন হবে।

এদিকে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে শাহবাগে যান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সমাজ সেবা সম্পাদক আখতার হোসেন। এসময় তিনি বলেন, আমি এই আন্দোলনের সাথে শুরু থেকেই একাত্মতা প্রকাশ করেছিলাম এখন আপনাদের সাথে আছি।

প্রশাসেনর উদ্দেশ্যে আখতার বলেন, প্রশাসনকে জানাতে চাই, আমাদের পরিচয় হুমকির মুখে রয়েছে। প্রশাসনের এই সিদ্ধান্ত আমাদের জন্যও অসংখ্য অসুবিধার সৃষ্টি করেছে। পাশাপাশি তাদেরকেও বিপদের সম্মুখীন করেছে। আমরা এর দ্রুত সমাধান চাই।’

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: