করোনা লাইভ
আজকে আক্রান্ত : ৪৭০ ◈ আজকে মৃত্যু : ১১ ◈ মোট সুস্থ্য : ৪৯৫,৪৯৮
প্রচ্ছদ / সারাদেশ / বিস্তারিত

মুক্তিযুদ্ধে শহীদ আনোয়ারের সমাধি সংরক্ষনের উদ্যোগ নিল উপজেলা প্রশাসন

১৫ জানুয়ারি ২০২১, ৬:৪৭:২০

মাসুম বিল্লাহঃ
বাগেরহাটের শরণখোলার মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ ক্যাডেট অফিসার ক্যাপ্টেন আনোয়ার হোসেনের অরক্ষিত সমাধি সংরক্ষণের উদ্যোগ নিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলার রায়েন্দা বাজারে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের মাজারের পার্শ্বে অবস্থিত মুক্তিযোদ্ধা কবরস্থানে স্থানান্তর করা সমাধিটি পাঁকাকরণের কাজ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৪জানুয়ারি) সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরদার মোস্তফা শাহিন এ কাজের উদ্বোধন করেন।

পাক হানাদার বাহিনীর গুলিতে নিহত শহীদ ক্যাডেট অফিসার শহীদ আনোয়ার হোসেনকে উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের সুন্দরবন সংলগ্ন বগী গ্রামের নিজ বাড়িতে সমাধিস্থ করা হয়। পরবর্তীতে বলেশ্বর নদের ভাঙনে কবরটি বিলিন হতে থাকে। ২০১৪ সালে পরিবারের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে.এম মামুন উজ জামান কবরটি স্থানান্তরের উদ্যোগ নেন। ওই সময় তিনি কবর থেকে শহীদ আনোয়ারের দেহাবশেষ তুলে কফিনস্থ করে আনুষ্ঠানিক গার্ড অব অনার প্রদান করে যথাযোগ্য রাস্ট্রীয় মর্যাদায় রায়েন্দা বাজারস্থ মুক্তিযোদ্ধা করস্থানে দ্বিতীয়বার সমাহিত করেন। সম্মুখযুদ্ধে প্রথম বীর শহীদের কবরের এমন দুরাবস্থা দেখে সমাধিটি সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয় উপজেলা প্রশাসন।

শরণখোলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার ও যুদ্ধকালীন কমান্ডার হেমায়েত উদ্দিন বাদশা জানান, সেনাবাহিনীর ক্যাডেট অফিসার আনোয়ার হোসেন যুদ্ধকালীন কমান্ডার ছিলেন। ১৯৭১সালের জুন মাসের দিকে শতাধিক সহযোদ্ধা নিয়ে শরণখোলা থানা ভবনের রাজাকার ক্যাম্পে আক্রমণ করেন এবং পাকবাহিনীর পাল্টা গুলিতে আনোয়ার হোসেন শহীদ হন। তিনিই শরণখোলার প্রথম শহীদ মুক্তিযোদ্ধা। তার কবরটি সংরক্ষণের উদ্যোগ নেওয়ায় প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সরদার মোস্তফা শাহিন বলেন, মুক্তিযোদ্ধা ও গণমাধ্যম কর্মীদের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরে সমাধিটি সংরক্ষণের উদ্যেগ। সমাধিটি বাধাইয়ের কাজ শুরু হয়েছে। একজন বীর শহীদের স্মৃতি রক্ষা করতে পেরে আমি গর্বিত।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মতামত: