রাবি ছাত্রলীগ সভাপতিসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও লিচু চুরির মামলা

৯ জুলাই ২০১৯, ৭:০৫:৫৬

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গোদাগাড়ী বাগানের লিচু সাবাড়ের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা কিবরিয়া ব্যতীত ছয় ছাত্রলীগ নেতার নাম উল্লেখসহ আর ১৫/২০ জনকে অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে।
বিজয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বহিরাগত মো. আকাশ।

মামলার বাদী এজাহরে উল্লেখ করেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অধিনস্থ গোদাগাড়ী বাগানের আম ও লিচু ২০১৯-২০২০ এই দুই মৌসুমের জন্য ১,৫১,৯৯৯ টাকায় কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে লিজ গ্রহণ করে। লিজকৃত বাগানে আসামীগণ সহ আরো ১৫ থেকে ২০ জন গত ০৭ মে ২০১৯ তারিখে রাত আটটার দিকে বাগানে অবৈধ অস্ত্র-সস্ত্র সহ মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে বাদীর নিকট থেকে দুই লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। সে সময় বাদীর সাথে সাক্ষীগণ উপস্থিত থাকায় আসামীরা কোন অঘটন ঘটাতে পারে নি। তবে ৯ মে ২০১৯ তারিখে বেলা চারটার দিকে উপরোক্ত আসামী সহ আরো অজ্ঞাতনামা ১৫ থেকে ২০ জন গোদাগাড়ী বাগানের লিচু পাড়ে। বাগানের পাহারাদার লিচু পাড়তে নিষেধ করলে গোলাম কিবরিয়া তাকে কিল ঘুষি মারে এবং মৃত্যুর ভয় দেখে বাগান থেকে চলে যেতে বলে। সে সময় বাদী ও সাক্ষী সহ বাগানে উপস্থিত হলে আসামীরা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এতে আমার বাদীর অনেক ক্ষতি হয়েছে এবং আসামীরা এখনও চাঁদা দাবি করছে। তাই বাদীর জীবন হুমকির মুখে আছে। উপরোক্ত ঘটনা ঘটিয়ে আসামিরা দ: বি: ৩২৩/৩৭৯/৩৮৫/৩৮৭/৫০৬(২)/৩৪ ধারার অপরাধ করেছে।

মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে রাবি ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া বলেন, আমি কোনো ধরনের চাঁদা দাবি করিনি। আর যারা বাগানটির টেন্ডার নিয়েছে তারা জামায়াত-শিবিরের সঙ্গে জড়িত। আমাকে রাজনৈতিকভাবে হেয় করার উদ্দেশ্যে মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমি তাদের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করব।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।