রিকশা থেকে নামিয়ে বন্দুক ঠেকিয়ে স্বামীর সামনেই স্ত্রীকে গণধর্ষণ!

৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪:১০:৫১

রিকশায় চেপে বাড়ি ফিরছিলেন এক দম্পতি। রিকশা থেকে তাঁদের টেনে নামায় ৪ দুষ্কৃতিকারী। এরপর স্বামীর সামনেই স্ত্রীকে ধর্ষণ করে তারা। স্বামী বাধা দিতে গেলে তাকে লক্ষ্য করে গুলিও ছোড়ে। ভারতের উত্তরপ্রদেশের আমরোহায় শনিবার রাতে এই ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি ঘটেছে।

জানা গেছে, নিগৃহীতা ওই নারীর বয়স ২৫ বছর। তার অভিযোগের ভিত্তিতে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্তদের সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। শনিবার বিজনরের চাঁদপুরায় ডাক্তার দেখিয়ে আমরোহার কুয়াখেরা গ্রামে নিজেদের বাড়িতে ফিরছিলেন ওই দম্পতি।

ওই নারী বলেছেন, রিকশা চেপে শনিবার সন্ধ্যায় চাঁদপুরা থেকে ফিরছিলাম আমি ও আমার স্বামী। কুয়াখেরা গ্রামের কাছে আসতেই গ্রামেরই চার বাসিন্দা উসমান, ইমামুদ্দিন, রশিদ ও রিয়াজুল আমাদের রিকশা থামায়। রিকশা চালককে হুমকি দেয় তারা। ভয় পেয়ে রিকশা ফেলে পালিয়ে যায় সে। তারা আমাদের পাশের একটি মাঠে নিয়ে যায়। এরপর বন্দুকের নল ঠেকিয়ে আমাকে গণধর্ষণ করে। আমার স্বামী বাধা দিতে গেলে তাঁর হাতে গুলি করে তারা। শুধু তাই নয়. ছুরি দিয়েও কোপায়। আমরা সাহায্য চেয়ে চিত্‍‌কার করলে কিছু লোক এগিয়ে আসেন। তখনই পালিয়ে যায় অভিযুক্ত ব্যক্তিরা।

এ বিষয়ে আমরোহার পুলিশ সুপার বিপিন টাডা জানান, ওই নারীর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২ জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। ওই নারীকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে তাঁর স্বামীর হাতে কোনো গুলির চিহ্ন মেলেনি।

প্রসঙ্গত, এর আগে, ২০১৬ সালে উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরে গাড়ি থামিয়ে এক নারী ও তাঁর কিশোরী মেয়েকে গণধর্ষণ করা হয়েছিল।

সূত্র : এই সময়

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।