আবরার হত্যা: মোনাজাত হয়ে উঠেছে আন্দোলনের ভাষা

৮ অক্টোবর ২০১৯, ৫:১৪:৫৮

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের হাতে নির্মমভাবে নিহত বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদের গায়েবানা জানাজা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে এ জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় ঢাবি কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি নুরুল হক ‍নুরুসহ আন্দোলনরত হাজার হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেন।

জানাজার পর আবরারের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন।

এসময় শিক্ষার্থীদের মোনাজাত হয়ে উঠে আন্দোলনের ভাষা।

মোনাজাতে আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করে বলা হয় ‘হে আল্লাহ, আবরার ফাহাদের কোনো ভুলত্রুটি হয়ে থাকে তাহলে তাকে তুমি মাফ করে দাও।

মাবুদ, তার যে আকাঙ্ক্ষা ছিল, সেই আকাঙ্ক্ষাকে তুমি কবুল করে নাও। তার সেই আকাঙ্ক্ষার পথে আরও শত শত আবরার ফাহাদ তৈরি করে দাও।

মাবুদ, যে যে জায়গায় মানুষ নির্যাতিত আছে তাদের তুমি মুক্তির ব্যবস্থা করে দাও। আমাদের সকলকে একত্রিত হয়ে সমস্ত অন্যায়ের, নির্যাতনের প্রতিবাদ করার শক্তি দান করুন।

মাবুদ, আবরার ফাহাদের বাবা-মা, আমাদের বাবা-মা সবাই চিন্তার মধ্যে আছে। আমাদের কাছে বার বার ম্যাসেজ আসছে আমরা যেন ফেসবুকে আর কিছু না লিখি। তারা অত্যন্ত চিন্তাগ্রস্ত আছেন। মাবুদ, আমাদের পিতামাতাকে এসব পেরেশানি থেকে মুক্তি দাও।

রাব্বির হামহুমা কামা রাব্বাইয়ানি ছাগিরা, রাব্বির হামহুমা কামা রাব্বাইয়ানি ছাগিরা।’

প্রসঙ্গত ভারতের সঙ্গে চুক্তির বিরোধিতা করে শনিবার বিকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন ফাহাদ। এর জের ধরে রোববার রাতে শেরেবাংলা হলের নিজের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে তাকে ডেকে নিয়ে ২০১১ নম্বর কক্ষে বেধড়ক পেটানো হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।