মেধাবী শিক্ষার্থী সনাতনকে বই দিয়ে সহযোগিতা করলেন ডা. ডি সি রায়

২৭ অক্টোবর ২০১৯, ৫:১৮:৫০

প্রদীপ রায় জিতু, বীরগঞ্জ দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥- চলতি বছর দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পাওয়া দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থী সনাতন চন্দ্র রায়ের স্বপ্ন পুরণে এগিয়ে এলেন ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ডি সি রায়। ২৭ অক্টোবর ২০১৯ রোববার সকালে শহরের ডায়াবেটিস হাসপাতালে তিনি তার চেম্বারে সনাতন চন্দ্র রায় এর হাতে এক সেট ১ম বর্ষের মেডিকেলের বোর্ড বই তুলে দেন। আর প্রত্যেক বছর যা বই প্রয়োজন সকল বই দেয়ার অঙ্গিকার করেন ডি সি রায়। এসময় সনাতনের সাথে ছিলেন তার পিতা। সনাতন চন্দ্র রায় দিনাজপুর জেলার বোচাগঞ্জ উপজেলার ৬নং রনগাঁও ইউনিয়নের পার্বতীপুর গ্রামের অসহায় দরিদ্র রাজমিস্ত্রি শুভ চন্দ্র রায়ের ছেলে। ডা. ডি সি রায় বলেন, সনাতন একজন মেধাবী শিক্ষার্থী। কিন্তু তার পরিবার দরিদ্র। তাই বলে শুধু দারিদ্রের কারণে একজন মেধাবী শিক্ষার্থীর স্বপ্ন ভেঙ্গে যাবে, এটা হতে দেয়া যাবে না। সমাজের স্বহৃদয়বান ব্যক্তি ও বৃত্তবানরা চাইলেই একজন মেধাবী শিক্ষার্থীর স্বপ্ন পুরণ করতে পারেন। বই হাতে মেধাবী শিক্ষার্থী সনাতন চন্দ্র রায় বলেন, আমার স্বপ্ন আমি একজন চিকিৎসক হবো। তাই আমি আমার লেখাপড়ার ক্ষেত্রে কোন অবহেলা বা গাফিলতি কখনই করিনা। সকলে যেন এভাবেই আমাকে আর্শিবাদ করেন। যাতে আমি আমার স্বপ্ন পুরণ করতে পারি।

ছেলের পাশে উপস্থিত পিতা বলেন, আমার ছেলে সনাতন অত্যন্ত মেধাবী। সে মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে এতে আমি ও আমার পরিবার অত্যান্ত আনন্দ বোধ করছি। কিন্তু সনাতনের স্বপ্ন পুরনে এখন বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে অর্থ। এতদিন কষ্ট করে রোজগারের উপর নির্ভর করে লেখাপড়ার খরচ বহন করলেও এখন বিষয়টি ভিন্ন। মেডিক্যালে পড়তে অনেক খরচ। একদিকে সংসারের খরচ অন্যদিকে লেখাপড়ার খরচ কোন দিকে সামাল দিবো বুঝে উঠতে পারছি না। কোন স্বহৃদয়বান ব্যক্তি আমার ছেলের জন্য স্কোলারশীপের ব্যবস্থা করে দিলে আমার মুশকিল আসান হতো। জানা গেছে, মেধাবী শিক্ষার্থী সনাতন চন্দ্র রায় চন্ডিপুর এম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৭ সালে জিপিএ-৫ পেয়ে এসএসসি ও ২০১৯ সালে সেতাবগঞ্জ সরকারি কলেজ থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে এইচএসসি পরীক্ষায় পাশ করে। এরপর সে ছোট বেলার স্বপ্ন ছিল চিকিৎসক হওয়ার। তার জন্য সনাতন শুধুমাত্র মেডিকেলেই ভর্তির আবেদন করে।

এজন্য সে অন্য কোথাও আর ভর্তির আবেদন করেনি। মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় সনাতন ২৭৩৩ সিরিয়াল নিয়ে দিনাজপুর এম, আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পায়। মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাওয়ায় সনাতনের পরিবারের পিতা-মাতা, ভাই-বোন, দাদা, দাদি সহ আত্মীয় স্বজনসহ গ্রামের আশপাশের মানুষজন ভীষন খুশি।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।