কিশোরগঞ্জে কৃষক মতিউর রহমান হত্যা মামলায় এক জনকে মৃত্যুদন্ড এবং ৬ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত

২৮ অক্টোবর ২০১৯, ৪:২৬:৫০

মোঃ জোবায়ের হোসেন খান, কিশোরগঞ্জঃ
কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলায় কৃষক মতিউর রহমান হত্যা মামলায় এক জনকে মৃত্যুদন্ড এবং ৬ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় অপর ৫ আসামিকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

সোমবার সকালে কিশোরগঞ্জের প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মুহাম্মদ আবদুর রহিম এ আদেশ দেন। রায় ঘোষনার সময় দন্ডপ্রাপ্ত আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। ফাসিঁর দন্ডপ্রপ্ত মোহাম্মদ ওরফে খোকন জেলার কটিয়াদী উপজেলার করগাও ইউনিয়নের পাচলীপাড়া গ্রামের তৈয়বুর রহমানের ছেলে। এ ছাড়া তাকে ৫ লাখ টাকা আর্থিক জরিমানা করা হয়েছে। যাবজ্জীবন সাজা পাওয়া আসামিরা হচ্ছেন, ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত খোকনের বাবা তৈয়বুর রহমান, দুই ভাই সম্রাট ও রোমান, একই এলাকার আশ্রাব আলী, মজিবুর রহমান ও আরব আলী। যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত প্রত্যেককে ২ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। মামলার বিবরণে জানা গেছে, রেলওয়েতে চাকুরি দেয়ার কথা বলে মামলার আসামি পাচলী গ্রামের তৈয়বুর রহমান একই এলাকার মতিউর রহমানের কাছ থেকে চল্লিশ হাজার টাকা নেন। কিন্তু চাকুরি দিতে না পারায় টাকা ফেরত চাওয়াকে কেন্দ্র করে আসামিদের সাথে মতিউর রহমানের বিরোধ বাঁধে। ২০১১ সালের ২৭ মার্চ সন্ধ্যায় ভ্যানগাড়িতে করে বাড়ি যাওয়ার পথে পাচলীপাাড়া এলাকায় আসামিরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মতিউর রহমানকে গুরুতর আহত করে। আশংকাজনক অবস্থায় বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

এ ঘটনায় নিহতের ছেলে মো. রিয়াজ উদ্দিন বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে পরদিন কটিয়াদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে একই বছরের ২১ অক্টোবর ১২ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।