ঘুমের মধ্যেই চলন্তিকা বস্তিতে আগুন, নারী দগ্ধ

২৪ জানুয়ারি ২০২০, ১১:৩৮:৩৪

আবারো পুড়ল রাজধানীর মিরপুরের চলন্তিকা বস্তি। শুক্রবার ভোরে এ আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিটের প্রায় দুই ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসলেও তার আগেই পুড়ে যায় দেড়শতাধিক ঘর। দগ্ধ হয়েছেন এক নারী। বারবার আগুন লাগার কারণ অনুসন্ধানে কমিটি করেছে ফায়ার সার্ভিস।

গত বছরের ১৬ আগস্ট সন্ধ্যায় রাজধানীর মিরপুরের চলন্তিকা বস্তিতে আগুনে পুড়েছিল দেড় হাজার ঘরবাড়ি। এর ৬ মাসের মাথায় আবারো পুড়লো এ বস্তি। এবার পুড়ে ছাই হয়েছে দেড় শতাধিক ঘর। ভোর চারটার দিকে যখন আগুন লাগে তখন সবাই ঘুমে ছিলেন। কিছু বুঝে ওঠার আগেই পুড়ে ছাই হয়ে যায় মাথা গোজার শেষ সম্বলটুকু। ঠান্ডায় খোলা আকাশের নিচে ঠাঁই নিতে হয়েছে তাদের। বারবার আগুন লাগার কারণ অনুন্ধানের দাবি বস্তিবাসীর।

একজন বস্তিবাসী বলেন, যা ছিল সব পুড়ে গেছে। কিছুই বের করা যায়নি।

আরেকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, একজন নারী পুড়ে গেছেন। তিনি ঘরে আটকা ছিলেন। পরে তাকে বের করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

ফায়ার সার্ভিসের ১৫টি ইউনিটের প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টায় আগুন নেভানো হয়। সংস্থাটি জানায়, অগ্নিকাণ্ডের কারণ এবং ক্ষয়ক্ষতি তদন্তে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠনের কথা।

ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মকর্তা বলেন, সরু রাস্তা, পানির অভাব। তাই গার্মেন্টসের রিজার্ভার থেকে পানি আনা হয়েছে।


স্থানীয় পুলিশ বলেন, এখন পর্যন্ত পারভীন নামে একজন দগ্ধ হয়েছেন। তাকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

২০১৯ সালের ১৬ আগস্টের আগুনে একই বস্তির প্রায় ৩ হাজার ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।