শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ১ লক্ষ গাছের চারা রোপন অভিযান

২১ জুলাই ২০১৮, ১২:৫৬:৫৮

মো. দ্বীন ইসলাম, মতলব উত্তর (চাঁদপুর)॥
মতলব উত্তর ইঞ্জিনিয়ার্স এ- আর্কিটেক্টস এসোসিয়েশন উদ্যোগে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ১ লক্ষ গাছের চারা রোপনের অভিযানের উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে সাতানী লতুরদি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গাছের চারা রোপন করেন- রিয়েল এস্টেট এ- হাউজিং এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি, দ্যা স্ট্রাকচারাল ইঞ্জিনিয়ার্স লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মেদ আবদুল আউয়াল। দুপুরে দশানী মোহনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে গাছের চারা রোপন করেন -দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রীর জেষ্ঠ্যপুত্র, ছেংগারচর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ গভর্র্ণিংবডির সভাপতি সাজেদুল হোসেন চৌধুরী দিপু।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- মতলব উত্তর ইঞ্জিনিয়ার্স এ- আর্কিটেক্টস এসোসিয়েশন সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক সুমন, সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আরিফ হোসেন খান, বেক্সিমকো ইঞ্জিনিয়ালিং লিঃ এর ডেপুটি ম্যানেজার ইঞ্জি. শরীফ ওবায়েদ উল্লাহ, ইঞ্জি. মো. মাহফুজ, ইঞ্জি.আবদুস সোবহান, ইঞ্জি. আবু বকর বিপুল, ইঞ্জি. ইসমাঈল হক সোহান, ইঞ্জি. আরিফ উল্লাহ, ইঞ্জি. সাদ্দাম হোসেন, ইঞ্জি. শাহজাদা, আশিকুর রহমান মহন’সহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- দশানী মোহনপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মানসুর আহমদ, ছেংগারচর সরকারী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বেনজির আহমদ।

এ দিন চান্দ্রাকান্দি এসইএল মডেল একাডেমি, দশানী মোহনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ছেংগারচর মডেল সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়সহ উপজেলার সকল বিদ্যালয়ে গাছির চারা প্রদান করা হয়।এ সময় অতিথিবৃন্দ সাতানূ লতুরদি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আগর গাছের চারা রোপন করেন। ১০ লক্ষ টাকা ব্যায়ে খেলার মাঠ বালু ভরাট করে দেয়া সহ বিভিন্ন উন্নয়ন করে দেন। মাঠ পরিদর্শন করেন অতিথিবৃন্দ।

ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মেদ আবদুল আউয়াল বলেন, প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের হুমকির মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ। যা ইতিমধ্যেই এক ভয়াবহ সমস্যায় রূপ নিয়েছে। শুধুমাত্র গাছ লাগানোর মাধ্যমে এই বিপর্যয় অনেকটা রোধ করা সম্ভব। পরিবেশের ক্ষতিকর দিক থেকে রক্ষা পেতে এবং সবুজ-শ্যামলীময় করে তুুলতে বেশী করে গাছ লাগাতে হবে। এতে করে পরিবেশ রক্ষার পাশাপাশি দেশ আর্থিক ভাবেও লাভবান হবে। প্রাকৃতিক ও পরিবেশগত ভারসাম্য রক্ষায় গাছ লাগানোর বিকল্প নেই।সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও মাদকাসক্তি থেকে যুবসমাজকে ফিরিয়ে আনতে খেলাধুলার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস বা মাদকাসক্তি। এগুলো মানুষের মন, মানসিকতা ও স্বাস্থ্য নষ্ট করে দিচ্ছে; সমাজকে কলুষিত করে দিচ্ছে। এখান থেকে আমাদের যুবসমাজ সবাইকে ফিরিয়ে আনতে হবে। সেদিকে লক্ষ্য রেখেই খেলাধুলার আরও বেশি সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে।

দৈনিক আলোর প্রতিদিন এর প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।